১৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার

পরিসংখ্যানে ফ্রান্স-বেলজিয়াম লড়াই

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, জুলাই ১০, ২০১৮, ৮:০৩ অপরাহ্ণ

নিউজ ডেস্ক : রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে তারুণ্যের ফ্রান্সের সামনে বেলজিয়ামের ‘সোনালী প্রজন্ম’। প্রথমবারের মতো বিশ্ব মঞ্চে ফাইনালে ওঠার হাতছানি বেলজিয়ানদের। আর নিজেদের দ্বিতীয় বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন ফরাসিদের। মঙ্গলবার সেন্ত পিতার্সবুর্গ স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় সেমি-ফাইনালে মুখোমুখি হবে দুই দল।

নিজেদের ইতিহাসে মাত্র দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে পৌঁছেছে বেলজিয়াম। এর আগে ১৯৮৬ সালে ফুটবলের সবচেয়ে বড় টুর্নামেন্টের শেষ চারে পৌঁছেছিল ইউরোপের দেশটি। কিন্তু ঐ আসরের চ্যাম্পিয়ন দিয়েগো মারাদোনার আর্জেন্টিনার কাছে হেরে বিদায় নিতে হয় তাদের।

২৩ ম্যাচ অপরাজিত আছে রবের্তো মার্তিনেসের দল। ২০১৬ সালে ইউরোর কোয়ার্টার ফাইনালে ওয়েলসের বিপক্ষে শেষ প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ হেরেছিল তারা।এখন পর্যন্ত চলতি আসরের দলগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ১৪টি গোল করেছে বেলজিয়াম। এ পর্যন্ত রাশিয়া বিশ্বকাপে আত্মঘাতী গোল বাদে বেলজিয়ামের হয়ে নয়জন খেলোয়াড় গোলের দেখা পেয়েছেন। বিশ্বকাপের ইতিহাসে এক আসরে একটি দলের হয়ে এর চেয়ে বেশি খেলোয়াড়ের গোল করার কীর্তি আছে মোটে দুটি। ২০০৬ সালে ইতালি ও ১৯৮২ সালে ফ্রান্স দলের সর্বোচ্চ ১০ জন করে খেলোয়াড় গোল করেছিলেন।

জাতীয় দলের হয়ে শেষ ১৩ ম্যাচে ১৭টি গোল করার পাশাপাশি ৩টি গোলে অবদান রেখেছেন রোমেলু লুকাকু। দুই হলুদ কার্ড দেখায় বেলজিয়ামের ফুল ব্যাক তমা মুনিয়ে সেমি-ফাইনালে খেলতে পারবেন না। ষষ্ঠবারের মতো বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে পৌঁছেছে ফ্রান্স। অবশ্য শেষ চারে আগের পাঁচ লড়াইয়ের তিনটিতেই হেরেছে ফরাসিরা। ১৯৯৮ সালে ক্রোয়েশিয়া ও ২০০৬ সালে পর্তুগালকে হারিয়ে ফাইনালে জায়গা করে নেয় তারা। চলতি আসরে লক্ষ্যে রাখা শেষ ছয়টি শটেই গোলের দেখা পেয়েছে দিদিয়ের দেশমের দল। বিশ্বকাপ ও ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ মিলিয়ে ফরাসি ফরোয়ার্ড অঁতোয়ান গ্রিজমান শেষ ছয় নক আউট ম্যাচে করেছেন সাত গোল।

চলতি বিশ্বকাপে নিজেদের পাঁচ ম্যাচে মাত্র চারটি গোল হজম করেছে ফ্রান্স। ইউরোপের দুই প্রতিবেশী বেলজিয়াম ও ফ্রান্সের মুখোমুখি লড়াইয়ের ইতিহাসটা যথেষ্টই দীর্ঘ। ৭৩ বার এর আগে দেখা হয়েছে দুই দলের। ফরাসিদের জয় ২৪টি, বেলজিয়ানদের ৩০টি। বাকি ১৯টি ম্যাচ হয়েছে ড্র।