১৯ আগস্ট ২০১৮, ৩ ভাদ্র ১৪২৫, শনিবার
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার

টি-টোয়েন্টিতেও সিরিজ জয় বাংলাদেশের

একুশে প্রতিবেদক
প্রকাশিতঃ সোমবার, আগস্ট ৬, ২০১৮

ঢাকা: ওয়ানডের পর টি-টোয়েন্টিতেও সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে ডার্ক লুইস ম্যাথড পদ্ধতিতে ক্যারিবীয়দের ১৯ রানে হারিয়ে সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছে সাকিব বাহিনী। এর আগে ক্যারিবীয়রা ১৭ ওভার ১ বলে তুলতেই মার্কিন মুলুকের লুডারহিল স্টেডিয়ামে হানা দেয় বৃষ্টি। এতে থেমে যায় খেলা।

পরবর্তীতে ডার্ক লুইস ম্যাথড পদ্ধতিতে টাইগারদের ১৯ রানের জয় ঘোষণা করেন আম্পায়ার। এর আগে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ক্যারিবীয়দের চ্যালেঞ্জিং টার্গেট ছুঁড়ে দেয় টাইগার ব্যাটসম্যানরা। এতে বিরাট অবদান রাখেন ওপেনার লিটন দাস।

এদিনে ক্যারিয়ারে টি-টোয়েন্টিতে প্রথম হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন লিটন। ব্যাট করতে নেমে তামিম ইকবাল এবং লিটনের ব্যাটে উড়ন্ত সূচনা পায় টিম বাংলাদেশ। শুধু তাই নয়, এদিন বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে সবচেয়ে দ্রুততম ৫০ রানের মাইলফলকে পৌঁছেছে বাংলাদেশ। ২২ বলেই (৩.৪ ওভার) ৫০ রান পূরণ করে ফেলে টাইগাররা।

নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারালেও দারুণ সংগ্রহের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিল বাংলাদেশ। তবে ১৭তম ওভারের খেলা চলার সময় হঠাৎই নামে বৃষ্টি। প্রায় আধা ঘণ্টা বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ থাকার পর আবার শুরু হয়। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৫ উইকেট হারিয়ে ১৮৪ রান। সর্বোচ্চ ৬১ রান করেন লিটন। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ করেন ৩২ রান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এটাই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সংগ্রহ।

এদিকে চ্যালেঞ্জিং স্কোরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই দেখেশুনে খেলতে থাকে টিম ওয়েস্ট-ইন্ডিজ। ওপেনিং ব্যাটসম্যান আন্দ্রে ফ্লেচারকে ফিরিয়ে দিয়ে শুরুটা করেছিলেন পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। এরপর দ্রুতই উইকেট হারাতে থাকলেও ক্যারিবীয়দের একপ্রান্তে দানব হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন আন্দ্রে রাসেল। তার দানবীয় ব্যাটিংয়ের উপর ভর করেই জয়ের স্বপ্ন দেখছিলো টিম ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এবার দানব হয়ে ওঠা রাসেলকেও ফেরালেন কাটারবয় মুস্তাফিজুর রহমান।

এদিকে প্যাভিলিয়নে ফেরত যাওয়ার আগে রাসেলে খেলেন ২১ বলে ৪৭ রানের এক বিধ্বংসী ইনিংস। ছয় চক্কা ও এক চারে এ রান তোলেন রাসেল। রাসেল ছাড়া একমাত্র ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান রামদিন মাত্র একটি ওভার বাউন্ডারি খেলেন। এর আগে শুরুতেই ব্যাটিংয়ে নেমে বিপর্যয়ে পড়ে টিম ওয়েস্ট ইন্ডিজ। টাইগার বোলারদের তোপের মুখে একে একে আউট হয়ে যান ওয়াল্টন, ফ্লেচার ও স্যামুয়েলস। স্যামুয়েলসতো টাইগার বোলারদের মোকাবেলা করতেই যেন ভুলে গিয়েছিল। তার সংগ্রহ ৭ বলে ২ রান।

এদিকে ব্যাটসম্যানদের পর বোলাররাও তাদের কৃতীত্ব দেখিয়েছেন। মুস্তাফিজুর রহমান তুলে নেন ৩ উইকেট। এ ছাড়া সাকিব, রুবেল, রনি ও সৌম্য প্রত্যেকে একটি করে উইকেট তুলে নেন। সাকিব ৪ ওভার বল করে মাত্র ২২ রান খরচায় তুলে নেন একটি উইকেট। সব মিলিয়ে বোলিং-ব্যাটিংয়ের মিলিত নৈপুণ্যে আমেরিকার মাটি জয় করেই দেশে ফিরছে টাইগার বাহিনী।