২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫, মঙ্গলবার

ত্রিপুরা পল্লীর আরো ৪ জন হাসপাতালে

প্রকাশিতঃ বুধবার, আগস্ট ২৯, ২০১৮, ১২:৪৩ পূর্বাহ্ণ

হাটহাজারী প্রতিনিধি : মঙ্গলবার হাটহাজারীর ত্রিপুরা পল্লীতে হামরোগে আক্রান্ত আরো ৪ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তিরা হলেন শরবতী ত্রিপুরা (৩২) কবিতা ত্রিপুরা (৮), মনি ত্রিপুরা (২৩) ও ঝর্না ত্রিপুরা (৩)।

এছাড়া মঙ্গলবার হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন শিরমাত ত্রিপুরা (৩৩), রুমা ত্রিপুরা (২৫) শান্তি রাণী ত্রিপুরা (৩)। এ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা দাঁড়ালো ৩২ জনে।

এদের মধ্যে সোনালী ত্রিপুরা (৫), গোপাল ত্রিপুরা (২), মেনশন চাকমাসহ (৪) ৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের সীতাকুণ্ডের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল ইনফেকশন ডিজিজে (বিআইটিআইডিতে) স্থানান্তর করা হয়।

ইতিমধ্যে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা, ইউনিসেফ, আইইসিডিআর থেকে ৫ সদস্যের টিমসহ বিভিন্ন সংস্থার কয়েকটি প্রতিনিধি দল হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেসহ ত্রিপুরা পল্লী পরিদর্শন করেছেন।

পরিদর্শন শেষে তারা শিশু-মৃত্যু ও অসুস্থতার চারটি কারণ চিহ্নিত করেছেন। এগুলো হলো- বিশুদ্ধ পানীয় জলের অভাব, পুষ্টিজনিত সমস্যা, শিক্ষার অভাব এবং নোংরা পরিবেশ। এছাড়া আক্রান্ত শিশুদের কখনো রোগ প্রতিরোধক টিকা দেয়া হয়নি বলে ত্রিপুরা পল্লীর অভিভাবকদের বরাতে জানিয়েছেন পরিদর্শন টিমের সদস্যরা। বৃহস্পতিবার ত্রিপুরা পল্লীতে হামের টিকা দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে, মঙ্গলবার ত্রিপুরা পল্লীর প্রত্যেক পরিবারকে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের জরুরী ত্রাণ তহবিল থেকে ২০ কেজি চাল, নগদ এক হাজার টাকা এবং ২৪ জনকে জামা-কাপড় বিতরণ করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আক্তার উননেছা শিউলী।

এ সময় চট্টগ্রাম জেলার জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদপ্তরের প্রতিনিধি দল, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সাইদা আলম, উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা আমান উল্লাহ, ইউপি চেয়ারম্যান ইদ্রিস মিয়া তালুকদার, ইউপি সদস্য বাদশা আলম এবং সিরাজুল ইসলাম ইমরান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

একুশে/এএ/এটি