১৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার

‘১০ বছরে ১ কোটির বেশি মামলা নিষ্পত্তি’

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, অক্টোবর ৩০, ২০১৮, ১:১৩ পূর্বাহ্ণ

ঢাকা: গত ১০ বছরে দেশের নিম্ন আদালতে এক কোটির বেশি মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জানিয়েছেন, বর্তমান সরকারের দুই মেয়াদে (২০০৯-২০১৮) জেলা ও দায়া জজ আদালত এবং সমপর্যায়ের ট্রাইবুনালগুলোয় এককোটি একলাখ ৩৭ হাজার ৭৬১টি মামলা নিষ্পত্তি করা হয়েছে।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদের ২৩তম ও সমাপনী অধিবেশনের সমাপনী দিনে সোমবার টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নোত্তর পর্বে এম আবদুল লতিফের (চট্টগ্রাম-১১) প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান।

মামলা দ্রুত নিষ্পত্তিতে সরকারের গৃহীত নানা পদক্ষেপ তুলে ধরে আইনমন্ত্রী বলেন, বিচার বিভাগ আধুনিকায়ন ও গতিশীল করার লক্ষ্যে বর্তমান সরকার যে সব পদক্ষেপ নিয়েছে, তা বাস্তবায়িত হলে সারা দেশে বিচারাধীন মামলার সংখ্যা সহনীয় পর্যায় নেমে আসবে। এ সময় তিনি জানান, সরকার নারী ও শিশু নির্যাতন অপরাধ দমন সংক্রান্ত মামলা দ্রুত নিস্পত্তির জন্য ৪১টি ট্রাইবুন্যাল ও ২টি সন্ত্রাস বিরোধী বিশেষ ট্রাইবুনাল সৃজন করেছে। আরো ৫টি সাইবার ট্রাইবুনাল, ৮টি মানি লন্ডারিং ট্রাইবুনাল, ১২২টি অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত, ১৫৯টি যুগ্ম জেলা জজ আদালত, ১৯টি পরিবেশ আদালত, ৬টি পরিবেশ আপীল আদালত, ২১৪টি সহকারি সিনিয়র সহকারি জজ আদালত, ৩৪৬টি জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বা সমমানের আদালত সৃজন প্রক্রিয়াধীন আছে।

আইনমন্ত্রী আরো জানান, এ পর্যন্ত সুপ্রিম কোর্টের আপীল বিভাগে ৬ জন ও হাইকোর্ট বিভাগে ২৮ জন বিচারপতি নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে। অধস্তন আদালতে ৪২৭ জন সহকারি জজ নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ১৪৩ জন প্রার্থীও নিয়োগ পূর্ব প্রাক পরিচয় যাচাই চলছে। আরো নিয়োগের জন্য ১৮তম জুডিশিয়াল সার্ভিস পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। এসময় তিনি সংসদকে জানান, দেশে সহকারী জজ সিনিয়র সহাকারী জজের ৯৪টি পদ শূন্য আছে। এছাড়া যুগ্ম জেলা জজের ৪১টি পদ শূন্য রয়েছে।

বিচারাধীন মামলার সংখ্যা ৮০ লাখ

মহিলা এমপি সেলিনা বেগমের প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী জানান, সারা দেশে চিফ জুডিশিয়াল এবং চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের ৭০টি আদালত রয়েছে। এসব আদালতে বিচারাধীন মামলার সংখ্যা আট লাখ ৮০ হাজার ৭৯৪টি। একই সঙ্গে মহিলা এমপি বেগম হাজেরা খাতুনের প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী জানান, দেশে নিম্ন আদালতে মোট বিচারাধীন মামলার সংখ্যা ৩৪ লাখ ৫৩ হাজার ৩৫৩টি। এর মধ্যে দেওয়ানি ১৩ লাখ ৯৭ হাজার ৩৫৪টি, ফৌজদারি ১৯ লাখ ৬৭ হাজার ১৬৫টি এবং অন্যান্য ৮৮ হাজার ৮৩৪টি।