১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ৪ পৌষ ১৪২৫, মঙ্গলবার

একদিকে সংলাপ, অন্যদিকে আন্দোলনের হুমকি : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ শনিবার, নভেম্বর ৩, ২০১৮, ৫:৪১ অপরাহ্ণ

ফাইল ছবি

ঢাকা : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন- নানা লাঞ্ছনা, অপমান, নির্যাতনের পরও গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখতে এবং সকল দলের অংশগ্রহণে সুষ্ঠু, অবাধ, নিরপেক্ষ নির্বাচনের স্বার্থে সংলাপে সাড়া দিয়েছি। সাধ্যমত তাদের দাবি মেনে নেয়ার চেষ্টা করেছি। তাদের বললাম, মামলার তালিকা দিন কেউ অযথা মামলার শিকার হলে আমরা দেখব। কেবল খুনের অভিযোগ থাকলে সেসব বিষয়ে আমরা কিছু করতে পারব না। বলেছি সভাসমাবেশ করুন, তাতে আমাদের কোনো আপত্তি নেই। পুরো সংলাপজুড়ে তারাই কথা বলেছেন। আমি কেবল শেষে কথা বলেছি। আর তারা সংলাপ থেকে বেরিয়েই বললেন আন্দোলন চলবে। একদিকে সংলাপ, আরেকদিকে আন্দোলনের হুমকি দুটি একসঙ্গে চলতে পারে না।

শনিবার বিকেলে রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ৩ নভেম্বর জাতীয় চার নেতা হত্যা দিবসের আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়ার মামলা তো আমরা করিনি। তাদের বানানো সেনাবাহিনী প্রধান মঈনউদ্দিন, তাদের করা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফখরুদ্দিনের সরকার এই মামলা দায়ের করেছে। আর সেসময় আইন উপদেষ্টা ছিলেন বিএনপির আজকের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মঈনুল ইসলাম। ১০ বছর মামলা চলার পর খালেদা ও তারেকের বিরুদ্ধে রায় হয়েছে। বিচার বিভাগ সম্পূর্ণ স্বাধীন। সেখানে আমাদের কোনো হাত নেই।

নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু হবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। আমাদের সরকারের আমলে নির্বাচন কমিশনের অধীনে ৬ হাজার নির্বাচন হয়েছে। কোনো নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন নেই। নির্বাচন কমিশন স্বাধীনভাবে কাজ করছে। সার্চ কমিটি গঠনের মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠিত হয়েছে। সেই সার্চ কমিটিতে বিএনপিও তাদের পছন্দের ব্যক্তির নাম দিয়েছে। আওয়ামী লীগের একজন, বিএনপির একজন, অন্যদল থেকে একজন করে নিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে। এখন সেই নির্বাচন কমিশন নিয়েও তাদের প্রশ্ন।

১৯৯৬ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি প্রহসনের নির্বাচনের মতো দেশে নির্বাচন হবে না। সেই নির্বাচনে বিএনপি বঙ্গবন্ধুর খুনীদের সংসদ সদস্য বানিয়ে সংসদে বসিয়েছে। ফলে দেশের মানুষ আন্দোলন করে দেড় মাসের মাথায় তাদেরকে ক্ষমতা থেকে নামতে বাধ্য করেছে। বলেন প্রধানমন্ত্রী।

আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম প্রমুখ।

একুশে/এটি