১৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার

নারীর উন্নয়ন ছাড়া দেশে উন্নয়ন অসম্ভব : সুজন

৯ নভেম্বর সিইপিজেড চত্বরের নারী সমাবেশ সফল করুন

প্রকাশিতঃ সোমবার, নভেম্বর ৫, ২০১৮, ৭:২৪ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম : সিইপিজেড চত্বরে শুক্রবারের নারী সমাবেশকে সফল করার আহ্বান জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন।

সোমবার (৫ নভেম্বর) বিকেলে ৩৯নং ওয়ার্ড রেশমী কমিউিনিটি সেন্টারস্থ স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর অফিসে অনুষ্টিত ৩৮, ৩৯, ৪০ ও ৪১নং ওয়ার্ড মহিলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের এক প্রস্তুতি সভায় এ আহ্বান জানান তিনি।

খোরশেদ আলম সুজন বলেন, নারী সমাজ বাংলাদেশের অর্থনীতির একটি বিশাল খাত। নারীদের আর কোনভাবেই অবহেলা করার কোন সুযোগ নেই। নারীর উন্নয়ন ছাড়া দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন অসম্ভব। নারীদের কর্মস্থলকে উন্নত করা, মানবিক করা আজ সময়ের দাবী।

আগামী ৯ নভেম্বর শুক্রবার বিকাল ৩ ঘটিকায় সিইপিজেড চত্বরের বিশাল নারী সমাবেশকে সাফল্যমন্ডিত করার জন্য প্রতিটি পাড়া মহল্লার নারী সমাজকে এগিয়ে আসার তিনি উদাত্ত আহ্বান জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ যখনই সরকার গঠন করেছে তখনই দেশের নারী সমাজের উন্নয়নে কাজ করেছে। ১৯৯৬ সালে সরকার গঠনের পর পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় নারী উন্নয়নকে যুক্ত করা হয়।

তিনি বলেন, ১৯৯৭ সালের ৮ মার্চ বাংলাদেশে সর্বপ্রথম জাতীয় নারী উন্নয়ন নীতি ঘোষণা করা হয়। ১৯৯৭ সালে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৩টি সংরক্ষিত নারী আসনে সরাসরি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। একই বছরের ২৮ মে ‘নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস’ পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

খোরশেদ আলম সুজন বলেন, ১৯৯৮ সালে নারী উন্নয়নে কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। সন্তানের পরিচিতির সঙ্গে বাবার নামের পাশে মায়ের নাম ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ সরকারই সর্বপ্রথম সামরিক বাহিনীতে অফিসার পদে নারীদের নিয়োগ দেয়া শুরু করে। এসময় বাংলাদেশ প্রথম মহিলা সচিব নিয়োগ দেয়া হয়।

খোরশেদ আলম সুজন আরো বলেন, জাতীয় সংসদের স্পিকার, গুরুত্বপূর্র্ণ মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রী, সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি, সিনিয়র সচিব, ব্যাংকিং সেক্টরে উচ্চপদ, রাষ্ট্রদূত, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি, প্রো-ভিসি, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার এবং নির্বাচন কমিশনার হিসেবে নারীদের নিয়োগ দিয়েছে শেখ হাসিনার সরকার।

আগামী নির্বাচনে নারীর চলমান অগ্রযাত্রাকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে নৌকা প্রতীকে জয় করার লক্ষ্যে কাজ করার জন্য নারী সমাজের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান তিনি।

ইপিজেড থানা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শারমিন সুলতানা ফারুকের সভাপতিত্বে এবং ৩৯নং ওয়ার্ড মহিলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক নাসিমা আকতারের সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য কাউন্সিলর গোলাম মোহাম্মদ চৌধুরী, ইপিজেড থানা আওয়ামী লীগের আহবায়ক হাজী হারুনুর রশীদ, যুগ্ম-আহবায়ক মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবু তাহের, ৩৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী শফিউল আলম, ৪০নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চৌধুরী আজাদ, ৩৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী জিয়াউল হক সুমন, মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সদস্য কামরুন্নাহার বেবী, ৪০নং ওয়ার্ড মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফরোজা খানম, সাধারণ সম্পাদক নাছিমা আকতার, ৪১নং ওয়ার্ড মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী স্বপ্না বেগম, ফারজানা বেগম, ৩৯নং ওয়ার্ড মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী রুমানা আকতার রুমা, রোকসানা আকতার, ৩৮নং ওয়ার্ড মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ফারজানা মুন্নী, সাধারণ সম্পাদক সুইটি দে ঝুমু, তাহমিনা বেগম ও মিন্নাত আরা প্রমূখ।

একুশে/প্রেসবিজ্ঞপ্তি/এসসি