১৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার

বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার শুরু, ভিডিও কনফারেন্সে আছেন তারেকও

প্রকাশিতঃ রবিবার, নভেম্বর ১৮, ২০১৮, ১২:২৩ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিনিধি : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ শুরু হয়েছে। আজ (রোববার) গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ সাক্ষাৎকার সকাল ৯টা থেকে শুরু হয়েছে। চলবে ২১ নভেম্বর বুধবার পর্যন্ত। প্রথম দিনে রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের সাক্ষাৎকার হবে। দুপুরের পর রাজশাহী বিভাগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার হওয়ার কথা রয়েছে।

মনোনয়নপ্রত্যাশীরা জনান, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান লন্ডন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই সাক্ষাতকারে যোগ দিচ্ছেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমদ, জমিরউদ্দিন সরকার, মাহবুবুর রহমান, রফিকুল ইসলাম মিয়া, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী এবং মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই বোর্ডে আছেন। বোর্ডের আরেক সদস্য স্থায়ী কমিটির নেতা মির্জা আব্বাস উপস্থিত রয়েছেন।

বিএনপি চেয়ারপরসন খালেদা জিয়া দুই দুর্নীতি মামলার সাজায় গত ফেব্রুয়ারি থেকে কারাবন্দি। তার অবর্তমানে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হয়েছেন তার ছেলে তারেক রহমান। দুর্নীতির দুই মামলায় ১৭ বছর এবং ২১ অগাস্ট গ্রেনেড মামলায় যাবজ্জীবন সাজার রায় মাথায় নিয়ে গত এক দশক ধরে তিনি আছেন লন্ডনে।

বিএনপির দপ্তরের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রংপুর বিভাগে পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর, নিলফামারী, লালমনিরহাট, রংপুর, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা জেলার ৩৩টি সংসদীয় আসনের জন্য আড়াইশ প্রার্থী দলীয় মনোনয়ন পেতে সাক্ষাৎকার দিচ্ছেন।

সকাল ৯টায় দলের পার্লামেন্টারি বোর্ডে প্রথম ডাক পড়ে পঞ্চগড়-১ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের। এ আসনের দলের মনোনয়ন চেয়েছেন তিন জন। এরা হলেন ইউনুস শেখ, ব্যারিস্টার নওশাদ জমির ও তৌহিদুল ইসলাম।

২০০১ সালের নির্বাচনে এই আসনে প্রার্থী হয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, পরে তিনি ওই সংসদে স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি এবার আছেন পার্লামেন্টারি বোর্ডে। আর তার ছেলে ব্যারিস্টার নওশাদ জমির ওই আসনের মনোনয়নপ্রত্যাশী হিসেবে সাক্ষাৎকার দিতে এসেছেন।

দুপুরের পর জয়পুরহাট, বগুড়া, চাঁপাইনবাগঞ্জ, নওগাঁও, রাজশাহী, নাটোর, সিরাজগঞ্জ ও পাবনা জেলার ৩৯টি সংসদীয় আসনের মনোনয়নের জন্য তিন শতাধিক আবেদন জমা পড়েছে বিএনপির দপ্তরে।

নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী, সোমবার বরিশাল ও খুলনা বিভাগ; মঙ্গলবর চট্টগ্রাম, কুমিল্লা ও সিলেট; বুধবার ময়মনসিংহ, ফরিদপুর ও ঢাকা বিভাগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার হবে।

এই সাক্ষাৎকারের কারণে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ের সামনের সড়কের মোড়ে পুলিশের ব্যারিকেড দেওয়া হয়েছে। মনোনয়নপ্রত্যাশীদের ফরম জমার রশিদ নিয়ে আসতে বলা হয়েছে। তাদের কর্মী-সমর্থক নিয়ে আসতে নিষেধ করা হলেও অনেকেই ১০/১২ জনকে সঙ্গী করে এসেছেন।

বিএনপির শীর্ষ নেতারা বলছেন, দলে কোন প্রার্থীর সংকট নেই। বরং প্রতিকূল অবস্থায়ও প্রত্যাশার চাইতে বেশি সাড়া পেয়েছেন তারা। প্রার্থী চূড়ান্ত করার ক্ষেত্রে সক্রিয় এবং এলাকায় জনপ্রিয়রাই এগিয়ে থাকবেন বলে জানিয়েছেন মনোনয়ন বোর্ডের সদস্যরা। মনোনয়ন বোর্ড চূড়ান্ত করলেও নাম এখনই ঘোষণা করা হবে না বলেও জানান নেতারা।

একুশে/আরসি/এসসি