১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ৪ পৌষ ১৪২৫, মঙ্গলবার

প্রেমে বাধা, ছাত্রীর মাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে গৃহশিক্ষক

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, নভেম্বর ২০, ২০১৮, ৬:৩০ অপরাহ্ণ

ছবি : আকমাল হোসেন

চট্টগ্রাম : বাসায় পড়াতে গিয়ে ছাত্রীর উপর কুনজর পড়ে গৃহশিক্ষকের। বিষয়টি বুঝতে পেরে পড়াতে বারণ করে দেন মা শাহানা বেগম। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শাহানা বেগমকে (৩৫) কুপিয়ে হত্যা করে গৃহশিক্ষক শাহজাহান। ঘটনাটি ঘটে নগরের আকবর থানা সংলগ্ন বিশ্বকলোনির পাশে।

পুলিশ-প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, মিরসরাইয়ের বাসিন্দা শাহজাহান ৪ মাস আগে বিশ্বকলোনি এলাকার জসিমের মেয়ে তানজিলাকে পড়ানোর দায়িত্ব পান। পড়ানোর একপর্যায়ে নবম শ্রেণীর ছাত্রী তানজিলার প্রতি কুনজর পড়ে গৃহশিক্ষক শাহজাহানের।

এ ঘটনা বুঝতে পেরে দুমাস আগে গৃহশিক্ষককে বাসায় পড়াতে আসতে বারণ করে দেন তানজিলার মা শাহানা বেগম। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ছাত্রী, ছাত্রীরা বাবা-মাকে ফোনে হুমকি ও নানা ছুতোনাতায় বিরক্ত করতে থাকেন।

মঙ্গলবার (২০ নভেম্বর) দুপুর আড়াইটার দিকে একমাসের বেতন বকেয়া আছে সেই অজুহাতে গৃহশিক্ষক শাহজাহান বিশ্বকলোনিতে গিয়ে ছাত্রীর বাবা জসিমের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়ায় এবং একপর্যায়ে জসিম ও তার ভাইকে কুপিয়ে আহত করে। তাদের রক্ষায় শাহানা বেগম এগিয়ে এলে তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করে পালনোর সময় এলাকাবাসী গৃহশিক্ষক শাহজাহানকে ধরে আকবর শাহ থানায় সোপর্দ করে।

গুরুতর আহত শাহানা বেগমকে চমেক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত জসিম ও ছাত্রীর চাচা চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

আকবর শাহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জসিম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে একুশে পত্রিকাকে জানান, একই পরিবারের ৩ জনকে কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় এলাকাবাসী গৃহশিক্ষক শাহজাহানকে ধরে থানায় সোপর্দ করেছে। এব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে। লাশ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

একুশে/এটি