১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, মঙ্গলবার

আ.লীগ জোর করে আবার ক্ষমতায় আসতে চায় : চট্টগ্রাম বিএনপি

প্রকাশিতঃ শনিবার, ডিসেম্বর ৮, ২০১৮, ১০:০৪ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম: আওয়ামী লীগ জোর করে আবার ক্ষমতায় আসতে চায় বলে অভিযোগ করেছেন চট্টগ্রামের বিএনপি নেতারা।

শনিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তারা এ কথা বলেন। চট্টগ্রাম মহানগর যুবদল নেতা এমদাদুল হক বাদশার বাসায় পুলিশী তল্লাশী ও তার ছোট ভাইকে গ্রেফতারের ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতিটি দেয়া হয়।

এর আগে গত ৬ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক এমদাদুল হক বাদশার বাসায় পুলিশী তল্লাশীর নামে ভাঙচুর ও তার ছোট ভাই জাবেদুল হক জাবেদ ও অফিস কর্মচারী মো. করিমকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে এতে উল্লেখ করা হয়।

এতে বলা হয়, আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন একতরফাভাবে করার মাধ্যমে দেশে আবারো একদলীয় বাকশালী শাসন প্রতিষ্ঠিত করতেই বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের লাগাতার গ্রেফতার ও নির্যাতন করছে সরকার। এ নির্যাতন ক্রমাগত তীব্র থেকে তীব্রতর করা হচ্ছে। সরকারের নির্দয়-নিষ্ঠুর আচরণে এটি সুস্পষ্ট যে, তারা জোর করে আবার ক্ষমতায় আসতে চায়।

বিবৃতিতে বলা হয়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসীল ঘোষণার পরও চট্টগ্রামের পুলিশ প্রশাসন বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেফতার, নতুন নতুন মামলা ও জেল গেইট থেকে পুনরায় গ্রেফতার এখনো অব্যাহত রেখেছে। জনবিচ্ছিন্ন হওয়ার কারণে সরকার অমানবিক ও অগণতান্ত্রিক পথে হাঁটছে।

অবিলম্বে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরী, যুগ্ম মহাসচিব লায়ন আসলাম চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম বক্কর সহ গ্রেফতার নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার পূর্বক নি:শর্ত মুক্তির দাবী জানান বিএনপি নেতারা।

বিবৃতি দেন বিএনপির জাতিয় স্থায়ী ক‌মি‌টির সদস্য আমির খসরু মাহামুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান এম মোর‌শেদ খান, মীর মোহাম্মদ না‌ছির উ‌দ্দিন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা বেগম রোজী কবির, গোলাম আকবর খন্দকার, এস এম ফজলুল হক ফজু, চট্টগ্রাম মহানগর বিএন‌পির ভারপ্রাপ্ত সভাপ‌তি আবু সু‌ফিয়ান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এস এম সাইফুল আলম, চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের সভাপতি মোশারফ হোসেন দিপ্তী ও সাধারণ সম্পাদক মো. শাহেদ প্রমুখ।