বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০, ৩১ আষাঢ় ১৪২৭

রাঙ্গুনিয়ায় মামার শ্যালকের দায়ের কোপে যুবক খুন

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, জুন ৩০, ২০২০, ১০:৩৬ পূর্বাহ্ণ

রাঙ্গুনিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলায় মামার শ্যালকের দায়ের কোপে এক যুবক খুন হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিকে মঙ্গলবার (৩০ জুন) ভোর ৫ টার দিকে চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি সড়কের রাঙ্গুনিয়া থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এর আগে সোমবার (২৯ জুন) বিকাল ৪টার দিকে উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড ঠান্ডাছড়ি এলাকায় এই খুনের ঘটনা ঘটে।

নিহত মো. রনি (২১) ওই এলাকার রফিক চেয়ারম্যান কলোনী এলাকার মো. মাহবুবের ছেলে। রনি পেশায় একজন মোটরসাইকেল মেকানিক ছিলেন। এক বছর আগে তিনি বিয়ে করেন।

ঘাতক মো. ইউনুস (৩২) উপজেলার চন্দ্রঘোনা কদমতলী ইউনিয়নের মুহাম্মদ আলীর ছেলে। ইটভাটার শ্রমিক হিসেবে কাজের সুবাদে রাজানগর ইউনিয়নের ঠান্ডাছড়ি গ্রামের সিরাজ মাস্টার কলোনীতে ভাড়া বাসায় থাকতেন ইউনুস। ঘটনার পরই তিনি পালিয়ে যান। যদিও পরে পুলিশের হাতে ধরা পড়েন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবদুল বারেক বলেন, নিহত রনির আপন মামার শ্যালক হলেন ঘাতক ইউনুস। সেই সুবাদে ইউনুসের ভাড়া বাসায় প্রায়ই আসা যাওয়া করতো রনি। সেখানে গিয়ে তার কাছে টাকাপয়সা সহ নানা কিছু চাইতো এবং না দিলে রাগারাগি করতো। বিষয়টি ইউনুসের পছন্দ হতো না এবং প্রায়ই তাকে সেখানে যেতে মানা করতেন। কিন্তু রনি তার কথা না শুনে প্রায়ই সেখানে গিয়ে তার সাথে নানা বিষয়ে তর্কে জড়াতেন।

সোমবার বিকালেও সিরাজ মাস্টার কলোনীতে ইউনুসের ভাড়া বাসায় যান রনি। গিয়েই মামার সাথে তর্কে জড়িয়ে পড়েন তিনি। একপর্যায়ে ইউনুস ভাগনের বুকে দা দিয়ে কুপিয়ে জখম করে পালিয়ে যান। এতে সে গুরুতর আহত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এলাকার লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দিয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেলে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

রাঙ্গুনিয়া থানার এসআই মো. জয়নাল আবেদীন একুশে পত্রিকাকে জানান, নিহত রনির লাশ উদ্ধার করে গতকাল থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রামে পাঠানো হয়। লাশ আজ মঙ্গলবার নিহতের পরিবারে হস্তান্তর করা হবে।

তিনি আরো জানান, গতকাল থেকেই ঘাতক ইউনুসকে ধরতে অভিযান চালানো হচ্ছিল এবং উপজেলার বিভিন্ন সড়কে চেকপোস্ট বসানো হয়। সর্বশেষ আজ ভোর ৫ টার দিকে রানীরহাট রাঙ্গামাটি সড়ক হয়ে চট্টগ্রাম শহরের দিকে যাওয়ার সময় ঘাতক ইউনুসকে আটক করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

তাকে আজ দুপুরের দিকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে বলেও জানান এসআই মো. জয়নাল আবেদীন।