শনিবার, ৮ আগস্ট ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭

এবার হজে ছোঁয়া যাবে না কাবা ঘর ও কালো পাথর

প্রকাশিতঃ সোমবার, জুলাই ৬, ২০২০, ২:৩৭ অপরাহ্ণ


রিয়াদ : করোনা মহামারির কারণে এ বছর হজ্ব হবে কিনা এ নিয়ে কিছুদিন সংশয়ে দোলার পর সীমিত আকারে হজ্বের অনুমতি দিয়েছে সৌদি সরকার। শর্ত হলো, সৌদিতে অবস্থানরত লোক ছাড়া বাইরের কোনো দেশ থেকে হজ পালনে ইচ্ছুক কাউকে আসতে দেয়া হবে না। ফলে মাত্র লাখখানেক মানুষ এবছর হজ্ব পালনের সুযোগ পাবেন। আর হজ্ব আদায় করার ক্ষেত্রে আরো কিছু বিধি-নিষেধ আরোপ করেছে সরকার। এর মধ্যে অন্যতম হলো, এ বছর কোনো হাজি কাবা ঘর ছুঁয়ে দেখতে পারবেন না। খবর গালফ নিউজ, আরব নিউজের।

সোমবার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সি জানায়, প্রচণ্ড আবেগ আর ভালোবাসার কারণে সব হাজিরই স্বপ্ন থাকে অন্তত একবার হলেও কাবা ঘর ছুঁয়ে দেখার। কিন্তু করোনার এই সময়ে এটা করতে গেলে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতামত অনুযায়ী, এ বছর তাই কাবা ঘর স্পর্শ করা নিষিদ্ধ ঘোষিত হয়েছে।

প্রতি বছর যে পরিমাণ মানুষ হজ্ব পালন করে থাকেন এবার তার ৯০ শতাংশই থাকছে না। তবুও সতর্ক দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। তাওয়াফের ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট দূরত্ব (দেড় মিটার) বজায় রাখার বিধান জারি করা হয়েছে। নামাজের সময়ও একই দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। আরাফাতের ময়দানসহ সব অবস্থানের ক্ষেত্রেও স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে।

সৌদি আরবে করোনার সংক্রমণ এখনো বেশ গতিশীল। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৫৮০ জন। মৃত্যুবরণ করেছেন সর্বোচ্চ ৫৮ জন। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৯ হাজার ৫০৯ জন। মোট প্রাণহানি ঘটেছে ১ হাজার ৯১৬ জনের। সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৪৫ হাজার ২৩৬ জন। মুমূর্ষু অবস্থায় মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন ২ হাজার ২৮৩ জন।

এছাড়া হজ্বের সময় মিনা, মুজদালিফা ও আরাফাতের ময়দানেও ভ্রমণ সীমিত করা হবে। ১৯ জুলাই থেকে শুরু হওয়া হজ্বের এবারের আয়োজনে পুরোটা সময় হাজি ও আয়োজকদের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা হজ্বের ব্যাপারে সৌদির এ সিদ্ধান্তকে সমর্থন দিয়েছে। সংস্থার প্রধান টেড্রোস ঘেব্রেয়েসুস বলেছেন, ‘মুসলমানদের পবিত্র ধর্মীয় অনুষ্ঠান হজ্ব পালনে এ বিধি নিষেধ আরোপের বিষয়টা খুবই কঠিন সিদ্ধান্ত ছিল। কিন্তু আমাদের বুঝতে হবে আমরা ঠিক কোন ধরনের সময় অতিক্রম করছি।’