বুধবার, ৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭

যৌন হয়রানির অভিযোগের পর মিলল সিউল মেয়রের মরদেহ, চিরকুট উদ্ধার

প্রকাশিতঃ শুক্রবার, জুলাই ১০, ২০২০, ১২:৫৫ অপরাহ্ণ


আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) থেকে নিঁখোজ ছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ার সিউলের মেয়র পার্ক ওন-সুন। খোঁজাখুজির পর সাত ঘণ্টা পর তাঁকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ।

এর আগে বৃহস্পতিবার বিকেলে তাঁর মেয়ে বাবার নিখোঁজ হওয়ার সংবাদ দেয়। দেশটির রাজনীতিতে বেশ জনপ্রিয় ওন সুনকে ২০২২ সালের আসন্ন নির্বাচনে লিবারেল পার্টির একজন সম্ভাবনাময় প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে ধরা হয়েছিল।

দ্য কোরিয়া হেরাল্ড পত্রিকা জানাচ্ছে, মৃত পার্ক ওন সুন নিখোঁজের আগে একটি চিরকুট রেখে গিয়েছিলেন। যেখানে লেখা ছিল ‘আমি আমার পরিবারসহ সকলের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী’। মৃত্যুর পর তার দেহ যাতে সৎকার করা হয় এবং বাবা-মায়ের পাশে তাঁকে শায়িত করা হয় সে আহ্বানও জানান তিনি চিরকুটে। তবে এখনও পর্যন্ত তাঁর মৃত্যুর কোনো কারণ প্রকাশ করা হয়নি।

দ্য কোরিয়া হেরাল্ড বলছে, মেয়রকে খুঁজতে শত শত পুলিশ ড্রোন এবং কুকুর নিয়ে খোঁজ শুরু করেছিল। পরে সিউলের মাউন্ট বুগাক এলাকায় তার মরদেহ পাওয়া যায়। সেখানে তার মোবাইলের সর্বশেষ সিগন্যাল শনাক্ত করা হয়।

দক্ষিণ কোরিয়ার এই জনপ্রিয় রাজনীতিকের মৃত্যুর কারণ নিয়ে নানা রহস্য থাকলেও নিখোঁজের কয়েকঘণ্টা আগে এক নারী কর্মচারি তার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছিলেন বলে জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার সংবাদ মাধ্যমগুলো। এটিকে অনেকে এখনও তাঁর মৃত্যুর কারণ বলে গুঞ্জন তুললেও তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

সিউলের পুলিশ কর্মকর্তা চোই ইক-সু সংবাদ মাধ্যমে জানিয়েছেন, ঘটনাটি বিস্তারিত তদন্ত করে দেখার পর বলা যাবে পার্কের আসল মৃত্যুরহস্য।

দক্ষিণ কোরিয়ার অন্যতম প্রভাবশালী রাজনীতিবিদ পার্ক ওন-সুন ২০১১ সাল থেকে সিউলের মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

একুশে/এফআর/এটি