শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭

ভারতে বিষাক্ত মদ পানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮৬, গ্রেপ্তার ২৫

প্রকাশিতঃ রবিবার, আগস্ট ২, ২০২০, ৩:৩৭ অপরাহ্ণ


আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের পাঞ্জাবে বিষাক্ত মদ পান করে এ পর্যন্ত ৮৬ জন প্রাণ হারিয়েছে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আবগারি বিভাগের ৭ কর্মকর্তা ও কর্মকর্তাসহ ৬ পুলিশকর্মীকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছেন। কর্মকর্তারা বলেন, সরকার মৃতদের প্রত্যেক পরিবারপিছু দুই লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে।

বিষাক্ত মদে পাঞ্জাবের তরতারনে সবচেয়ে বেশি ৬৩ জন মারা গেছে। এছাড়া অমৃতসরে ১২, গুরুদাসপুরের বাটালায় ১১ জন প্রাণ হারিয়েছেন। রাজ্যটিতে গত (বুধবার) দিবাগত রাত থেকে মদপানজনিত মৃত্যুর ঘটনা প্রকাশ্যে আসে। শুক্রবার রাত পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৯ জনে পৌঁছয়। শনিবার পর্যন্ত তা বেড়ে ৮৬ হয়েছে।

পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং বলেন, ওই ঘটনায় কোনও সরকারি কর্মচারি বা অন্যরা জড়িত দেখা গেলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিষাক্ত মদ উৎপাদন ও বিক্রয় বন্ধে পুলিশ ও আবগারি দফতরের ব্যর্থতা লজ্জাজনক বলেও মুখ্যমন্ত্রী মন্তব্য করেন।

মুখ্যমন্ত্রী এরইমধ্যে জলন্ধরের বিভাগীয় কমিশনারকে ওই ঘটনার তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন। যুগ্ম আবগারি ও শুল্ক দফতরের কমিশনার এবং সংশ্লিষ্ট জেলার পুলিশ সুপাররাও ওই তদন্তে যুক্ত হবেন।

অন্যদিকে, পাঞ্জাব পুলিশের ডিজিপি দিনকর গুপ্তা বলেন, প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে দেশি মদ খেয়ে সবাই মারা গেছেন। পাঞ্জাব পুলিশের পক্ষ থেকে ওই ঘটনায় অমৃতসর, গুরুদাসপুর ও তরনতারনের বিভিন্ন এলাকায় কমপক্ষে একশ’ জায়গায় তল্লাশি চালিয়ে ২৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। একইসঙ্গে প্রচুর পরিমাণে বেআইনি মদ উদ্ধার করে তা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। উদ্ধার হওয়া মদ পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।