বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম কারাগারে

প্রকাশিতঃ সোমবার, জুন ১৭, ২০১৯, ৬:১৪ অপরাহ্ণ

ঢাকা : ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনের জামিন আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (১৭ জুন) সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মাদ আসসামস জগলুল হোসেন এই আদেশ দেন। একই সাথে মামলার অভিযোগ গঠনের জন্য আগামী ৩০ জুন দিন ধার্য করেছেন আদালত।

সোমবার দুপুর একটি প্রিজন ভ্যানে করে তাকে পুরান ঢাকার আদালতপাড়ায় নেয়া হয়। একই দিনে বেলা ২ টা ২০ মিনিটে সাবেক ওসি মোয়াজ্জেমকে ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হয়।

মামলার বাদী সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী সৈয়দ সাইয়েদুল হক আদালতকে বলেন, ওসি মোয়াজ্জেম পুলিশ বাহিনীর জন্য কলঙ্ক। তিনি আইনের সেবক হয়েও আইনের প্রতি শ্রদ্ধা দেখাননি। আদালত যেদিন তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন তারপর তিনি সরাসরি আপনার আদালতে হাজির হতে পারতেন। নিজেকে নির্দোষ দাবি করতে পারতেন। কিন্তু ওসি মোয়াজ্জেম তা না করে পালিয়েছিলেন।

সাবেক ওসি আসামি মোয়াজ্জেমের জামিন চেয়ে তার আইনজীবী ফারুক আহম্মেদ বলেন, ওসি মোয়াজ্জেম আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আইনের আশ্রয় নওয়ার জন্য তার মক্কেল হাইকোর্টে গিয়েছিলেন। আইনের আশ্রয় নেয়ার সুযোগ না দিয়ে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে এসেছে।

ফারুক আহম্মেদ বলেন, ওসি মোয়াজ্জেম পলাতক ছিলেন না। পত্রিকা মারফত তিনি জানতে পারেন, তার নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। এ জন্য আইনের আশ্রয় নেয়ার জন্য হাইকোর্টে গিয়েছিলেন। তিনি বাংলাদেশে ছিলেন। পালিয়ে বিদেশে যাননি।

অন্যদিকে জামিন আবেদন নাকচ করে আসামি সাবেক ওসি মোয়াজ্জেমকে কারাগারে পাঠানোর আবেদন করেন সাইবার ট্রাইব্যুনালের পিপি নজরুল ইসলাম শামীম।

সাইবার ট্রাইব্যুনাল পরোয়ানা জারির ২০ দিন পর রোববার বিকালে ঢাকার হাইকোর্ট এলাকা থেকে ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেমকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রায় তিন সপ্তাহ লাপাত্তা থাকার পর আগাম জামিন চাইতে হাইকোর্টে গিয়েছিলেন সাবেক এই ওসি।

একুশে/এসসি