বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬

চবি কলেজের অধ্যক্ষকে মতবিনিময় সভায় ‘অপমান’!

প্রকাশিতঃ বুধবার, জুলাই ১০, ২০১৯, ৭:০৫ অপরাহ্ণ


চবি প্রতিনিধি: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ল্যাবরেটরি স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ফজলুল হককে মতবিনিময় সভায় অপমান করার অভিযোগ উঠেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন্যান্স বিভাগের সভাপতি ড. শামীম উদ্দিন খানের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ উত্থাপন করেছেন তিনি।

বুধবার (১০ জুলাই) দুপুরে ওই ঘটনার সুবিচার চেয়ে উপাচার্য বরাবর একটি অভিযোগ পত্রও দিয়েছেন ওই অধ্যক্ষ।

অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়, ‘৯ জুলাই বেলা সাড়ে ১২ টায় উপাচার্যের সম্মেলন কক্ষে উপাচার্যের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে যোগদান করি। সভায় ফাইন্যান্স বিভাগের সভাপতি ড. শামীম উদ্দিন খান তার বক্তব্য দেওয়ার সময় আমাকে কেন্দ্র করে আক্রমণাত্মক ও শিষ্টাচার বিবর্জিত বক্তব্য দেন। এই বক্তব্য সভার এজেন্ডা বহির্ভূত। উনি আমাকে অপসারণ করতে বলেন।’

অধ্যক্ষ আরও উল্লেখ করেন, ‘আমি চুক্তিভিত্তিক নিয়োগপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ। উপাচার্য হিসেবে আপনি যেকোন সময় চুক্তি বাতিল করতে পারেন, আমিও চাকুরি ছেড়ে দেওয়ার উদ্যোগ নিতে পারি। এর জন্য নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া আছে। এজন্য আমাকে সভায় অপমানিত করার দরকার নাই।’

ঘটনার সুবিচার দাবি করে স্মারকলিপিতে তিনি বলেন, ‘এই বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন জামায়াতপন্থী শিক্ষক আমাকে সভায় অপদস্থ করায় আমি ব্যথিত হয়েছি। আপনার কাছে আমি সুবিচার চাই।’

অভিযোগের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন্যান্স বিভাগের সভাপতি ড. শামীম উদ্দিন খান একুশে পত্রিকাকে বলেন, চবি ল্যাবরেটরি স্কুল ও কলেজের পড়ালেখার মান কমেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা তাদের সন্তানদের বাইরে পড়াচ্ছে। এই বিষয়কে সামনে রেখে আমি বলেছি যে, মান খারাপ হয়েছে, ওনার বয়সও হয়েছে, বিকল্প চিন্তা করা উচিত। আমি এই কথাটুকু বলেছি, এখানে কাউকে অপমান করে, উদ্দেশ্যেপ্রণোদিত হয়ে কিছু বলিনি। ওনার সাথে আমার ব্যক্তিগতভাবে ভালো সম্পর্ক। ওনার সন্তানকে আমি পড়িয়েছি। এখানে ভুল বোঝাবুঝির কিছু নেই।