মঙ্গলবার, ১৭ জুলাই ২০১৯, ১ শ্রাবণ ১৪২৬

বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সড়কটি এখন মরণফাঁদ!

প্রকাশিতঃ শুক্রবার, জুলাই ১২, ২০১৯, ৭:০৭ অপরাহ্ণ

বান্দরবান: বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে যাওয়া-আসার রাস্তাটি। সড়কটি দিয়ে শুধু পুলিশ সদস্যরা চলাচল করে না, সড়কটি দিয়ে দক্ষিণ বাইশারী,পার্শ্ববর্তী রামু উপজেলার কয়েক হাজার মানুষ, স্কুলকলেজ, কয়েক শতাধিক শিক্ষার্থী চলাচল করে প্রতিদিন। এ গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি যেন এখন মরণফাঁদ। সড়কটি দীর্ঘকাল যাবৎ মেরামত না করায় করুণ অবস্থা তৈরি হয়েছে।

সরজমিনে দেখা যায়, বাইশারী বাজার হয়ে তদ্ন্ত কেন্দ্র যাওয়ার পথে কাপ্তাই শিয়া, সাংগু ফরেস্ট অফিস সংলগ্ন রাস্তার মাথায় গাড়ি চলাচল তো দূরের কথা, হেঁটে যাওয়ার সময় কাদা মাটিতে পিছলে অনেক দুরে যেয়ে পড়ে গুরুতর আহত হচ্ছেন লোকজন।

স্থানীয় বাসিন্দা আবদুর রহমান ও মুফিজুর রহমান একুশে পত্রিকাকে জানান, দৈনিক অনেক লোকজন ও ছাত্রছাত্রীরা পড়ে গিয়ে গুরুতর আহতসহ বই-খাতা, কলম নষ্ট হয়ে যাচ্ছে এবং অনেকে আহত হয়েছেন।

স্থানীয়রা আরো জানান, একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান গত ৪ মাস আগে সড়কটি মেরামতের নামে ইটগুলো তুলে এখনো লাপাত্তা রয়েছে। যার ফলে সড়কটিতে জনদুর্ভোগ এখন আরো চরমে পরিনত হয়েছে। বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রটি পুরো বাইশারী এলাকাসহ পার্শ্ববর্তী রামু উপজেলার কয়েকটি গ্রামের নিরাপত্তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা।

সড়কটির করুণ অবস্থা হওয়ায় সহজে গাড়ীযোগে তদন্ত কেন্দ্র হতে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছানো সম্ভব হয় না। শুধু সড়কের পাচশ’ গজ জায়গা মেরামত না হওয়ায় অর্ধলাখ লোকের জীবনে নিরাপত্তা নিয়ে শংঙ্কা তৈরি হয়েছে। নিরাপত্তারক্ষীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছালে না পারলে রর্ষা মৌসুমে সন্ত্রাসী চোর ডাকাতের উপদ্রব বেড়ে যাওয়ার সম্ভানা রয়েছে।

এ বিষয়ে বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সহকারী ইনচার্জ (উপ পরিদর্শক) মাঈনুদ্দিন একুশে পত্রিকাকে বলেন, সড়কের বেহাল দশার জন্য কোনো কাজে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছা মুশকিল হয়ে পড়েছে। যার কারণে জননিরাপত্তা এখন হুমকির মুখে। তিনি সড়কটি দ্রুত মেরামতের জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এবিষয়ে বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আলম কোম্পানি একুশে পত্রিকাকে বলেন, আমি নিজেই ঘটনাস্হল পরিদর্শন করেছি। নিরাপত্তা ও শান্তির জন্য পুলিশ সদস্যরা যাতে দ্রুত ঘটনাস্থল পৌঁছাতে পারে এবং জনসাধরণও যেন শান্তিতে চলাচল করতে সকল বিষয় চিন্তা করে উক্ত জায়গার জন্য একটি বিশেষ প্রকল্প বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে। অচিরেই কাজ শুরু হয়ে যাবে।