রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজ জয় নিশ্চিত করলো ভারত

প্রকাশিতঃ সোমবার, আগস্ট ৫, ২০১৯, ৬:১৭ অপরাহ্ণ


লডারহিল: এক ম্যাচ হাতে রেখেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজ জয় নিশ্চিত করলো সফরকারী ভারত। গতরাতে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ভারত বৃষ্টি আইনে ২২ রানে হারিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। এই জয়ে তিন ম্যাচ সিরিজ জয় নিশ্চিত করে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ভারত।

লডারহিলে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামে ভারত। দলকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন দুই ওপেনার রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান। ষষ্ঠ ওভারেই দলের স্কোর অর্ধশতকে নিয়ে যান তারা। শেষ পর্যন্ত অষ্টম ওভারের পঞ্চম বলে ধাওয়ান ব্যক্তিগত ২৩ রানে আউট হলে বিচ্ছিন্ন হয় এ জুটি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ডান-হাতি পেসার কেমো পলের বলে আউট হওয়ার আগে ১৬ বলের ইনিংসে ৩টি চার মারেন ধাওয়ান।

ধাওয়ান ফিরে যাবার পরও ভারতের রানের চাকা ঘুরেছে দ্রুত। অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে নিয়ে দলের স্কোর শতরানের কোটা অতিক্রম করেন রোহিত। সেই সাথে টি-২০ ক্যারিয়ারে ১৭তম হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নেন তিনি। হাফ-সেঞ্চুরির পরও ইনিংস বড় করার চেষ্টা করেছিলেন রোহিত। ক্যারিবিয় পেসার ওশান টমাসের বলে আউট হওয়ার আগে ৬টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৫১ বলে ৬৭ রান করেন তিনি। এই ইনিংস দিয়েই আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ১০৭টি ছক্কার মালিক হলেন রোহিত। এতদিন সংক্ষিপ্ত এ ভার্সনে সর্বোচ্চ ১০৫টি ছক্কার মালিক ছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের তারকা ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল। দ্বিতীয় উইকেটে কোহলির সাথে ৩৬ বলে ৪৮ রান যোগ করেন রোহিত।

দলীয় ১১৫ রানে দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে রোহিতের বিদায়ের পর ১৪৩ রানে পৌঁছাতেই আরও ৩ উইকেট হারায় ভারত। ফলে বড় স্কোর গড়ার পথ হারায় টিম ইন্ডিয়া। কিন্তু শেষদিকে ক্রুনাল পান্ডিয়ার ২টি ছক্কায় ১৩ বলে অপরাজিত ২০ রান ও রবীন্দ্র জাদেজার ৪ বলে ৯ রানে ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৬৭ রানের লড়াকু সংগ্রহ পায় ভারত। ওয়েস্ট ইন্ডিজের টমাস ও শেলডন কটরেল ২টি করে উইকেট নেন।

জয়ের জন্য ১৬৭ রানের লক্ষ্যে দ্বিতীয় ওভারেই উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ওপেনার এভিন লুইসকে শুন্য রানে ফিরিয়ে দেন ভারতের পেসার ভুবেনশ্বর কুমার। পরের ওভারে ওয়েস্ট ইন্ডিজ শিবিরে দ্বিতীয় আঘাত হানেন ভারতের অফ-স্পিনার ওয়াশিংটন সুন্দর। ৪ রান করা আরেক ওপেনার সুনীল নারাইনকে বিদায় করেন সুন্দর। ফলে ৮ রানে ২ উইকেট হারিয়ে শুরুতেই চাপে পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

তৃতীয় উইকেটে দারুন এক জুটি গড়ে শুরুর চাপ ভুলিয়ে দেন ওয়েস্ট ইন্ডিজে নিকোলাস পুরান ও রোভম্যান পাওয়েল। পুরান টেস্ট মেজাজে থাকলেও, মারমুখী ছিলেন পাওয়েল। তাই এই ৩০তম বলেই টি-২০ ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় হাফ-সেঞ্চুরি তুলে নেন পাওয়েল। এই জুটি যখন ম্যাচের লাগাম নিজেদের আয়ত্বে নেয়ার পথে ছিলেন, ঠিক তখনই ভারতকে ব্রেক-থ্রু এনে দেন বাঁ-হাতি স্পিনার ক্রুনাল পান্ডিয়া। ১৪তম ওভারের দ্বিতীয় বলে ধীরলয়ে খেলতে থাকা পুরানকে আউট করেন তিনি। ৩৪ বলে ১৯ রান করেন পুরান।

ঐ ওভারের পঞ্চম বলে পাওয়েলকেও শিকার করেন পান্ডিয়া। ৬টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৩৪ বলে ৫৪ রান করেন পাওয়েল। তৃতীয় উইকেটে ৬৬ বলে ৭৬ রান যোগ করেছিলেন পুরান-পাওয়েল।

দলীয় ৮৫ রানে ৪ উইকেট পতনের পর দলের হাল ধরেন কাইরন পোলার্ড ও শিমরোন হেটমায়ার। এসময় ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয়ের জন্য ৩৭ বলে ৮৩ রানের প্রয়োজন ছিলো। তবে ১৫ দশমিক ৩ ওভারের পর বৃৃষ্টি নামলে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। পরবর্তীতে খেলা শুরু সম্ভব না হলে বৃষ্টি আইনে জয়ের স্বাদ পায় ভারত। পোলার্ড ৮ ও হেটমায়ার ৬ রানে অপরাজিত ছিলেন। ভারতের পান্ডিয়া ২৩ রানে ২ উইকেট নেন। তাই ম্যাচ সেরা হন তিনি।

আগামী ৬ আগস্ট গায়ানায় অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-২০।