সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২ পৌষ ১৪২৬

‘বঙ্গবন্ধুকে শ্রদ্ধা না জানালে নাগরিক হওয়ার যোগ্যতাও থাকে না’

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১৫, ২০১৯, ৮:১৩ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম: জাতীয় শোক দিবসে চট্টগ্রামে নাগরিক শোকযাত্রা উদ্বোধন করতে গিয়ে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেছেন, ‘যারা বঙ্গবন্ধুকে শ্রদ্ধা জানাতে পারেন না তাদের এদেশের নাগরিক হিসেবে থাকার যোগ্যতাও নেই।’

মেয়র আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর সাথে অন্য কারো তুলনা চলে না। নাগরিক শোকযাত্রা শুরুর আগে এক সমাবেশে মেয়র একথা বলেন।

চট্টগ্রাম নাগরিক উদ্যোগ গেল তিনবছর ধরে চট্টগ্রামের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার প্রতিনিধিত্বশীল নাগরিকদের নিয়ে এই নাগরিক শোকযাত্রা করে আসছে। এই প্রথম এতে নেতৃত্ব দেন চসিক মেয়র। চট্টগ্রাম নাগরিক উদ্যোগের আহ্বানে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনের নেতৃত্বে নন্দনকাননের ডিসি হিল লাগোয়া এনায়েত বাজার মহিলা কলেজের সামনে থেকে বৃহষ্পতিবার বেলা ১১টায় শোকযাত্রাটি শুরু হয়।

চট্টগ্রাম নাগরিক উদ্যোগ আহ্বায়ক ও বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সঞ্চালনায় এই নাগরিক শোকযাত্রা ও এর আগে অনুষ্ঠিত সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ডাঃ একিউএম সিরাজুল ইসলাম, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক হাসিনা জাকারিয়া বেলা, শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি আবু তাহের চৌধুরী,বাবু, চট্টগ্রামের মহিলা কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শাহীন ফৈরদৌসী, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম, বিএমএ সদস্য ডাঃ হোসেন আহমেদ, ইয়াং ইন্জিনিয়ারস ফোরাম সভাপতি ও চট্টগ্রাম ওয়াসার বোর্ড সদস্য প্রকৌশলী রাজীব বড়ুয়া, ওয়ার্ড কাউন্সিলর তারেক সোলায়মান সেলিম, এস,এম, এরশাদ উল্লাহ, সাবেক কাউন্সিলর জামাল হোসেন প্রমুখ।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা সফর আলী, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, আওয়ামী লীগ নেতা শেখ মোহাম্মদ ইসহাক, মোহাম্মদ ঈসা, সাইফুদ্দিন খালেদ বাহার, জামশেদুল আলম চৌধুরী, ফারুক আহমেদ, সাংস্কৃতিক সংগঠক দেওয়ান মাকসুদ আহমেদ, সাংবাদিক আব্দুর রউফ পাটোয়ারী, ন্যাপ নেতা মিতুল দাশগুপ্ত, চট্টগ্রাম মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সুমন দেবনাথ, তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা পূলক খাষ্তগীর , চট্টগ্রাম নাগরিক উদ্যোগের সমন্বয়কারি সাংস্কৃতিক সংগঠক মোহাম্মদ খোরশেদ , যুবনেতা ওয়াহিদুল আলম শিমুল, আবদুর রশিদ লোকমান, কবি সজল দাশ, সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের যুগ্ম আহ্বায়ক আবু হাসনাত চৌধুরী, কার্যকরী সদস্য বোখারী আজম প্রমুখ।

সাবেক ও বর্তমান ছাত্রনেতা ও সংগঠকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগনেতা সাবেক ছাত্রনেতা শহীদুল কাওসার, মিনহাজুল আবেদীন সায়েম, আব্দূল্লাহ আল মামুন, ইয়াসির আরাফাত, মিথুন মল্লিক, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আব্দুল মালেক, যুগ্ম সম্পাদক আবু তোরব পরশ, সাবরিনা চৌধুরী, আরিফ মঈনুদ্দিন, এডভোকেট টিপু শীল জয়দেব, রায়হান মাহমুদ, ইমরান আলী মাসুদ, এম আই হোসেন সাহিদ , কাজী মো. আমান উদ্দিন, তরুণ সংগঠক জনী বড়ুয়া, চট্টগ্রাম আইন কলেজ ছাত্র লীগের সন্জয়িতা দত্ত পিংকি, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নওরিন আক্তার প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে চট্টগ্রাম নাগরিক উদ্যোগ আহ্বায়ক ও বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধু তৃণমূল থেকে ওঠে এসে জেলজুলুমের শিকার হয়ে বাঙালিকে শুধু একটি রাষ্ট্রই দেননি বাঙালি জাতির জন্য নিজের জীবনটাও সাহসের সাথে উৎসর্গ করেছেন। ঘাতকের বুলেট বেয়নেটের মুখে দাঁড়িয়েও দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে উচ্চকন্ঠ ছিলেন এই জাতীয়তাবাদী নেতা। উপমহাদেশ ও আন্তর্জাতিক রাজনীতির ধারা বিশ্লেষণ করলেও দেখা যায় জাতীয়তাবাদী নেতারা বিশ্ববেনিয়া ভ্রাতৃঘাতি, বেঈমানদের টার্গেটে পরিণত হন। বঙ্গবন্ধুকেও যারা টার্গেট করেছিলেন, তাদের এদেশীয় দোসররাই এদেশের গণতন্ত্র ও মানুষের অধিকার মর্যাদা লুটেছে।

একুশে/প্রেস বিজ্ঞপ্তি

মহান বিজয় দিবস ২০১৯ উপলক্ষে একুশে পত্রিকা কর্তৃক একটি বিশেষ সংখ্যা প্রকাশের উদ্যেগকে স্বাগত জানাই। বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের পক্ষ হতে উক্ত প্রকাশনার সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে জানাই-

বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা

একটি সুখী, সমৃদ্ধ, ক্ষুধা ও দারিদ্র স্বপ্নীল ও ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার এবং সন্ত্রাসমুক্ত পরিবেশ প্রতিষ্টার প্রত্যয় নিয়ে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ নিজস্ব উন্নয়ন কর্মসূচি এবং ২৮ টি ন্যস্ত বিভাগের বিভাগীয় কার্যক্রমের সমন্বয় সাধনসহ নিম্নবর্ণিত কার্যদি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছেঃ

১) শিক্ষা
২) স্বাস্থ্য সেবা
৩) কৃষি
৪) মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ
৫) ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প
৬) যোগাযোগ
৭) পানীয় জল ও স্যানিটেশন
৮) সমবায় ও সমাজ সেবা কার্যক্রম
৯) ক্রীড়া ও সংস্কৃতি কর্মকান্ড
১০) স্থানীয় পর্যটন
১১) আইসিটি সেক্টর উন্নয়ন এবং
১২) মানব সম্পদ উন্নয়ন ইত্যাদি।

একটি উন্নত, সমৃদ্ধ, আধুনিক ও সম্প্রীতিত মডেল জেলা হিসেবে বান্দরবানকে গড়ে তোলাই হলো আমাদের দৃঢ় অঙ্গীকার-

ক্য শৈ হ্লা
চেয়ারম্যান
বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ
বান্দরবানান