অভিন্ন নিয়োগ-পদোন্নতি নীতিমালা চায় না চবি শিক্ষক সমিতি


চট্টগ্রাম: পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) কর্তৃক প্রণীত ও প্রস্তাবিত ‘অভিন্ন শিক্ষক নিয়োগ ও পদোন্নতি নীতিমালা’ চায় না চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) শিক্ষক সমিতি।

বৃহস্পতিবার চবি শিক্ষক সমিতির এক জরুরী সাধারণ সভায় এই আপত্তির বিষয়টি উঠে আসে বলে সমিতির সভাপতি প্রফেসর মো. জাকির হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. অঞ্জন কুমার চৌধুরী সাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এতে উল্লেখ করা হয়, সভায় সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় যে, বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ ও পদোন্নতির বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন কর্তৃক প্রস্তাবিত অভিন্ন নীতিমালাটি ১৯৭৩ সালের বিশ্ববিদ্যালয় আইনের সাথে অসামঞ্জস্যপূর্ণ, সাংঘর্ষিক এবং বাস্তবতা বিবর্জিত।

সমিতির সদস্যবৃন্দ মনে করেন যে, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের মান, অবকাঠামো ও ভৌগলিক অবস্থান বিবেচনায় এরূপ অভিন্ন নীতিমালা গ্রহণের কোন সুযোগ নেই। বিশ্বের যে সমস্ত দেশ জ্ঞান, বিজ্ঞান ও গবেষণায় অগ্রগামী সেসব দেশের বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে এরূপ অভিন্ন নিয়োগ ও পদোন্নতির নীতিমালার প্রচলন নেই।

সময়ের প্রেক্ষাপটে বর্তমানে প্রচলিত নিয়োগ ও পদোন্নতি নীতিমালায় পরিবর্তন, পরিবর্ধন ও পরিমার্জন প্রয়োজন হলে তা কেবল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের প্রতিনিধিত্বকারী পর্ষদের মাধ্যমেই করা যেতে পারে।

সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের জন্য সুপার গ্রেড প্রদানসহ রাষ্ট্রীয় পদক্রমের সম্মানজনক স্থানে পদ নির্ধারণপূর্বক প্রজ্ঞাপন জারী এবং শিক্ষা ও গবেষণাবান্ধব পরিবেশ নিশ্চিতকরণে প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধাদি প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানানো হয়।

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট সকল কর্তৃপক্ষকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির প্রস্তাবসমূহ বিবেচনায় নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জোর দাবী জানাচ্ছে বলেও সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।