শনিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩০ ভাদ্র ১৪২৬

বিমান ছিনতাই চেষ্টা: পুলিশের ডাকে চট্টগ্রামে শিমলা

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯, ৫:১৫ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামে বিমান ছিনতাই চেষ্টার মামলায় চিত্রনায়িকা শামসুর নাহার শিমলাকে সাড়ে ৩ ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে বিভিন্ন তথ্য জেনেছে চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের (সিএমপি) কাউন্টার টেররিজম ইউনিট।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বেলা দেড়টা পর্যন্ত তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিদর্শক রাজেস বড়ুয়া।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় বিমানবন্দরে কমান্ডো অভিযানে পলাশ নিহত হওয়ার সময় তার নাম-ঠিকানা জানা যায়নি। তখন তাকে বলা হচ্ছিল, শিমলার প্রেমিক। তিনি বিমানের ক্রুদের জিম্মি করে ‘পারিবারিক সমস্যা’ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে চাইছিলেন।

পরে ধীরে ধীরে উদ্ঘাটিত হয়, নিহত যুবক জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী চিত্রনায়িকা শামসুন নাহার শিমলার স্বামী। ওই ঘটনার সাড়ে ৩ মাস আগে বয়সে নিজের চেয়ে ১৯ বছরের ছোট পলাশকে শিমলা তালাক দেন। বিয়েবিচ্ছেদের কারণ হিসেবে শিমলা নোটিসে উল্লেখ করেন, ‘দাম্পত্যজীবনে সুখী হতে না পারা, মনের অমিল, বনিবনা না হওয়া, পারিবারিক অশান্তি ও মানসিক নির্যাতন’।

ওই ঘটনায় ২৫ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামের পতেঙ্গা থানায় পলাশসহ কয়েকজনকে আসামি করে মামলা করে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটকে। গত ২৪ মার্চ পলাশের বাবা পিয়ার জাহান, মা রেনু বেগম, চাচা দ্বীন ইসলামসহ আত্মীয় স্বজন ও প্রতিবেশীসহ ১০ জনের বক্তব্য রেকর্ড করেন তদন্ত কর্মকর্তা। তবে ভারতে অবস্থান করায় এতদিন শিমলার বক্তব্য জানতে পারেনি পুলিশ। গত ২৫ অগাস্ট শিমলা দেশে ফিরলে তার সাথে যোগাযোগ করে কাউন্টার টেররিজম ইউনিট।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শিমলা বলেন, বিয়ের পর মনে হয়েছিল পলাশের মানসিক সমস্যা আছে। তাই তিক্ত হয়ে ডিভোর্স দিই। পলাশ বিমান ছিনতাইয়ের চেষ্টা কেন করলেন তা আমি বলতে পারবো না।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের পরিদর্শক রাজেস বড়ুয়া একুশে পত্রিকাকে বলেন, তদন্তের অংশ হিসেবে শিমলাতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। পলাশের সাথে পরিচয় কখন থেকে, পরিচয় কিভাবে হয়েছে, ডিভোর্স দেয়ার কারণ, সংসার জীবনে পলাশ কী রকম ছিল, ডিভোর্সের পরে ও বিমান ছিনতাই চেষ্টার আগে যোগাযোগ হয়েছে কিনা- এসব জানতে চেয়েছি। তিনি যথেষ্ট সহযোগিতা করেছেন, সবকিছু বলেছেন।