সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

বঙ্গবন্ধু টানেলের নির্মাণ পরিদর্শনে সংসদীয় কমিটি

প্রকাশিতঃ শনিবার, অক্টোবর ১২, ২০১৯, ৪:৩৭ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম: বঙ্গবন্ধু টানেলের নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি।

শনিবার সকালে চট্টগ্রাম কর্ণফুলী নদীতে বাস্তবায়নাধীন সরকারের মেগা প্রকল্প বঙ্গবন্ধু টানেল পরিদর্শনে যান তারা।

এ সময় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি মো. একাব্বর হোসেন বলেন, টানেলের কাজ সম্পন্ন হলে দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে জোর কদমে এগিয়ে যাবে। ওয়ান সিটি এন্ড টু টাউন মডেলে দেশের দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন, এশিয়ান হাইওয়ে সেটওয়ার্কে সংযুক্তিসহ ৭টি গুরুত্বপূর্ণ উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ চারলেন বিশিষ্ট সড়ক বঙ্গবন্ধু টানেল প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

এসময় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য এডভোকেট মো.আবু জাহির, মো.ছলিম উদ্দিন তরফদার, চট্টগ্রাম সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জুলফিকার আহম্মেদ, বঙ্গবন্ধু টানেলের প্রকল্প পরিচালক মো. হারুন অর রশিদ, উপপ্রকল্প পরিচালক ড.অনুপম সাহা, উপপরিচালক মো. লুতফর রহমান, ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা সুরাইয়া আক্তার সুইটি ও সহকারী পরিচালক সালমা ফেরদৌস উপস্থিত ছিলেন।

বঙ্গবন্ধু টানেলের প্রকল্প পরিচালক মো. হারুন অর রশিদ বলেন, ২০১৬ সালের ১৪ অক্টোবর চীন সরকারের সাথে বঙ্গবন্ধু টানেলর প্রকল্পের চুক্তি হয়। এরপর স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় দ্রুতগতিতে কাজ চলমান রয়েছে। ইতোমধ্যে প্রকল্পের ৩৮.৭২ শতাংশ আর্থিক অগ্রগতি এবং ৪৮ শতাংশ বাস্তব ভৌত অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী ২০২২ সালের মধ্যে কাজ শেষ হবে।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য এডভোকেট মো.আবু জাহির বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডায়নামিক নেতৃত্বের জন্য বাংলাদেশে এই প্রথম নদীর তলদেশে যান চলাচলের ব্যবস্থা হয়েছে। কর্ণফুলী নদীর তলদেশে বঙ্গবন্ধু টানেল নির্মিত হলে বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামের উন্নয়ন দৃশ্যমান হবে। নদীর দুইপাড়ে গড়ে উঠবে শিল্পপ্রতিষ্ঠান, মানুষের কর্ম বৃদ্ধি পাবে ও জীবনযাত্রার মান বাড়বে।