বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬

বিসিবিকে দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলার প্রস্তাব ভারতের

প্রকাশিতঃ রবিবার, অক্টোবর ২৭, ২০১৯, ৬:৩৮ অপরাহ্ণ


ঢাকা: বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের আসন্ন সফরে দুই টেস্ট সিরিজের একটি দিবা-রাত্রির ম্যাচ খেলতে চায় ভারত।

আগামী ২২ নভেম্বর কোলকাতার ইডন গার্ডেনে শুরু হওয়া দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট ম্যাচটি দিবা-রাত্রিতে আয়োজন করতে চেয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি) প্রস্তাব দিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) নব-নির্বাচিত সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি।

এডিলেড ওভালে ২০১৫ সালের নভেম্বরে নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া প্রথম দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলে। তবে ভারত কিংবা বাংলাদেশ কোন দলই এখন পর্যন্ত দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলেনি।

দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলা হয় গোলাপি বলে। ভারত সব সময়ই গোলাপি বলের টেস্টে অনীহা প্রকাশ করে আসছিল, বাংলাদেশের খুব বেশি পছন্দ নয় এটি।

এমনকি এ বছরের শুরুতে নিউজিল্যান্ড সফরে দিবা-রাত্রির একটি খেলার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছিল বাংলাদেশ।
এবার বাংলাদেশকে কিছুটা সন্ধিগ্ধ মনে হচ্ছে।

বিসিবি ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান বলেন, ‘দুই তিন দিন আগে আমরা প্রস্তাবটি পেয়েছি। তবে এখনো আমরা এ বিষয়ে আলোচনা করিনি।’

‘বিষয়টি টিম ম্যানেজমেন্ট এবং খেলোয়াড়দের সঙ্গে আলোচনার পর আমরা ভারতকে আমাদের সিদ্ধান্ত জানাবো।’
দিবা-রাত্রির টেস্টে ধারস্ত হতে কয়েক বছর আগে বাংলাদেশ ঘরোয়া পর্যায়ে লংগার ভার্সনে কিছু ম্যাচ খেলেছিল। তবে সে সময় খেলোয়াড়রা গোলাপি বলের মান সম্পর্কে অভিযোগ করে এবং দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলার ধারণা বাতিল হয়ে যায়।

মাঠে দর্শক টানতে ভারতের দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলার বিষয়ে সব সময়ই উচ্চ কন্ঠ বিসিসিআই সভাপতি গাঙ্গুলি।
বাংলাদেশ সিরিজের জন্য দল ঘোষণাকালে গত বৃহস্পতিবার মুম্বাইয়ে বিরাট কোহলি ও সিমিত ওভারের সহ-অধিনায়ক রোহিত শর্মার সঙ্গে বৈঠক করেন গাঙ্গুলি এবং ধারণা করা হচ্ছে এ সময় তিনি দিবা-রাত্রির টেস্ট সম্পর্কে আলোচনা করেছেন।

ভারতীয় সংবাদ পত্রে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী গোলাপি বলে কোন প্রকার প্রস্তুতি না থাকায় গাঙ্গুলির দিবা-রাত্রির টেস্ট আয়োজনে ইন্ডিয়ান টিম ম্যানেজমেন্ট খুব বেশি আগ্রহী নয়।