সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

এমপি বাদলের মৃত্যু জাতির জন্য অপূরণীয় ক্ষতি : চট্টগ্রামের এসপি

প্রকাশিতঃ শনিবার, নভেম্বর ৯, ২০১৯, ৯:২৩ পূর্বাহ্ণ


চট্টগ্রাম: বাংলাদেশ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের কার্যকরী সভাপতি ও চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মইন উদ্দিন খান বাদলের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার (অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত) নুরেআলম মিনা।

শুক্রবার রাতে এক শোকবার্তায় তিনি বলেছেন, সংসদ সদস্য মইন উদ্দিন খান বাদলের মৃত্যু জাতির জন্য নি:সন্দেহে অপূরণীয় ক্ষতি। তাঁর মতো একজন প্রজ্ঞাবান ও বিরল রাজনীতিবিদের অভাব জাতি দীর্ঘদিন অনুভব করবে। চট্টগ্রাম অঞ্চলের মানুষ এ মৃত্যুতে একজন গুণী অভিভাবক’কে হারালো।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, তাঁর মতো একজন দেশপ্রেমিক, বিচক্ষণ ও নীতিবান ব্যক্তির মৃত্যুতে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের সকল সদস্য গভীরভাবে শোকাহত। চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করাসহ শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি। মহান সৃষ্টিকর্তা যেন তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারকে এ অপূরণীয় ক্ষতি ও প্রিয়জন হারানোর বেদনা বহন করার শক্তি দান করেন।

প্রসঙ্গত বৃহস্পতিবার ভোরে ভারতের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় চট্টগ্রামের সংসদ সদস্য বাদল। বছর দুই আগে ব্রেইন স্ট্রোক হওয়ার পর থেকেই তিনি অসুস্থ ছিলেন। ৬৭ বছর বছর বয়সী এই রাজনীতিবিদ হৃদযন্ত্রের জটিলতায়ও ভুগছিলেন।

ষাটের দশকে ছাত্রলীগের ‘নিউক্লিয়াসে’ যুক্ত বাদল একাত্তরে ভারতে প্রশিক্ষণ নেন এবং পরে যোগ দেন মুক্তিযুদ্ধে। চট্টগ্রাম বন্দরে অস্ত্র বোঝাই জাহাজ সোয়াত থেকে অস্ত্র খালাস প্রতিরোধের অন্যতম নেতৃত্বদাতা ছিলেন তিনি। মুক্তিযুদ্ধের পর সমাজতান্ত্রিক রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হন বাদল। জাসদ হয়ে বাসদ এবং পরে আবারো জাসদে ফেরেন।

চট্টগ্রামের বোয়ালখালী-চান্দগাঁও আসন থেকে ২০০৮ সালে মহাজোটের মনোনয়ন পান শরিক দল জাসদের নেতা বাদল। নৌকা প্রতীকে তার বড় জয়ের মধ্য দিয়ে ওই আসনে বিএনপির দীর্ঘদিনের আধিপত্যের অবসান ঘটে। এরপর ২০১৪ এবং ২০১৮ সালে আরও দুই বার তিনি আসনের এমপি নির্বাচিত হয়ে সংসদে যান।