বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭

‘ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে প্রকৃত বাঙালি সংস্কৃতির সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে হবে’

প্রকাশিতঃ রবিবার, জানুয়ারি ১২, ২০২০, ৮:১০ অপরাহ্ণ

 

চট্টগ্রাম : ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে প্রকৃত বাঙালি সংস্কৃতির সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে পারলেই ঐতিহ্যের শক্তিতে বলিয়ান হয়ে আমরা অগ্রসর হতে পারবো বলে মন্তব্য করেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

গিনেস ওয়ার্ল্ড বুকে সেরাদের মাঝে নাম লিখিয়েছেন চট্টগ্রামের কৃতি সন্তন তবলা বাদক পণ্ডিত সুদর্শন দাশ। গুণী এই শিল্পী আজ রোববার (১২ জানুয়ারি) বিকেলে টাইগারপাস চসিক মেয়র দপ্তরে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতকালে মেয়র এ মন্তব্য করেন।

সাক্ষাতকালে সিটি মেয়র পণ্ডিত সুদর্শন দাশকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, সুদর্শন দাশ আমাদের অহংকার। তিনি বিশ্ব দরবারে শুধু নিজের সুনাম বৃৃদ্ধি করেননি, বাংলাদেশের নামও উজ্জ্বল করেছেন।

মেয়র বলেন, অধ্যবসায় ছাড়া কখনো সফল হওয়া যায় না। তাঁর কঠোর সাধনা, একাগ্রতা ও সদিচ্ছা ছিল বলেই বিরল এই সম্মানের অধিকারী হয়েছেন। ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে প্রকৃত বাঙালি সংস্কৃতির সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে পারলেই ঐতিহ্যের শক্তিতে বলিয়ান হয়ে আমরা অগ্রসর হতে পারবো। মেয়র সুদর্শনের এই অর্জন নতুন প্রজন্মকে উজ্জীবিত করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এ সময় কাউন্সিলর ইসমাইল বালি, মেয়রের একান্ত সচিব আবুল হাশেম, সমাজসেবক আবদুর রশিদ লোকমান, জাহেদ হোসেন রনিসহ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন তারুণ্য’র নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পরে মেয়র চট্টগ্রামের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন তারুণ্য’র পক্ষ হতে তবলাবাদক পণ্ডিত সুদর্শনকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করেন।

উল্লেখ্য, সুদর্শন দাশ ২০১৬ সালে একটানা ৫৫৭ ঘন্টা ১১ মিনিটি তবলা, ২০১৭ সালে একটানা ২৭ ঘন্টা ঢোল, ২০১৮ সালে একটানা ১৪ ঘন্টা ড্রাম রোল ও ২০১৯ সালে একটানা ১৪০ ঘন্টা ৫ মিনিট ড্রাম সেট বাজিয়ে চার গিনেস ওয়ার্ল্ড বুক রেকর্ডের অধিকারী হন।

একুশে/এএ