বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই ২০২০, ১ শ্রাবণ ১৪২৭

ডেইলি স্টারের ‌’ডিস্ট্রিক্ট রিপোর্টার অব দ্যা ইয়ার’ মোস্তফা ইউসুফ

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, জানুয়ারি ১৪, ২০২০, ৬:৫৯ অপরাহ্ণ

ঢাকা : পাঠকনন্দিত ডেইলি স্টারের ‘ডিস্ট্রিক্ট রিপোর্টার অব দ্যা ইয়ার’ নির্বাচিত হয়েছেন পত্রিকাটির চট্টগ্রাম অফিসে কর্মরত স্টাফ করসপনডেন্ট মোস্তফা ইউসুফ।

মঙ্গলবার রাজধানীর ফার্মগেইটস্থ ডেইলি স্টার ভবনে পত্রিকাটির ২৯ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত‌ ‘স্টাফ ডে’ অনুষ্ঠানে জেলা পর্যায়ে বছরের সেরা রিপোর্টারের নাম ঘোষণা করে ডেইলি স্টার কর্তৃপক্ষ। মোস্তফা ইউসুফের সাথে যুগ্মভাবে ‌’ডিস্ট্রিক্ট রিপোর্টার অব দ্যা ইয়ার’ নির্বাচিত হয়েছেন ডেইলি স্টারের রাজশাহী জেলা প্রতিনিধি আনোয়ার আলী হিমু।

দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার দ্বিতীয় পর্বে মঙ্গলবার বিকেলে কৃতী সাংবাদিক মোস্তফা ইউসুফ এবং আনোয়ার আলী হিমুর হাতে রিপোর্টার অব দ্যা ইয়ার-এর সম্মাননা ও ক্রেস্ট তুলে দেন ডেইলি স্টারের বোর্ড অব ডিরেক্টরস আবদুর রউফ চৌধুরী ও রোকেয়া আফজাল রহমান। এসময় ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম উপস্থিত ছিলেন।

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার সরফভাটা ইউনিয়নের পশ্চিম সরফভাটা গ্রামের প্রয়াত মাওলানা ইসলাম আহমেদ ও শাহীন আকতারের একমাত্র ছেলে মোস্তফা ইউসুফ চট্টগ্রাম সিটি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে ইংরেজিতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জনের পর ২০১১ সালে চট্টগ্রামের ইংরেজি দৈনিক পিপলস ভিউ’র মাধ্যমে সাংবাদিকতা শুরু করেন। এরপর ২০১২ সালে নতুন আঙ্গিকে প্রকাশিত দৈনিক পূর্বদেশে স্টাফ রিপোর্টার, জাতীয় ইংরেজি দৈনিক নিউ এজ-এ স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে কাজ করার পর দেশের প্রথম অনলাইন ভিত্তিক আধুনিক সংবাদপত্র বিডিনিউজ২৪.কম-এ চট্টগ্রাম অফিসে স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে যোগ দেন। তিনবছর প্রতিষ্ঠানটিতে কাজ করার পর ২০১৫ সালে দেশের সর্বাধিক প্রচারিত ডেইলি স্টারের চট্টগ্রাম ব্যুরোর স্টাফ করসপনডেন্ট হিসেবে যোগ দেন মোস্তফা ইউসুফ। প্রায় এক দশকের সাংবাদিকতা জীবনে বহু অনুসন্ধানী, সাহসী প্রতিবেদন করে আলোচনায় আসেন মোস্তফা ইউসুফ।

সরকারের প্রভাবশালী সচিবরা মিলে পর্যটন নগরী কক্সবাজারে বনভূমি দখল করে তৈরি করছিলেন এডমিন একাডেমি। এ বিষয়ে ‘এডমিনস আইজ অন প্রটেক্টেড ফরেস্ট’  শিরোনামে ডেইলি স্টারে মোস্তফা ইউসুফের অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশের পর সংশ্লিষ্ট মহলে তোলপাড় শুরু হয়, টনক নড়ে সরকারের উচ্চপর্যায়ে। এর প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় থেকে ‌’এডমিন একাডেমি’ নির্মাণের জন্য সমতল ভূমি খুঁজতে বলে দেয়া হয় সচিবদের।

একইভাবে সীতাকুণ্ডের ম্যানগ্রোভ ফরেস্টকে কাগজপত্রে বালুচর দেখিয়ে জনৈক রাজা কাসেমের মালিকানাধীন বিবিসি স্টিলকে বিশাল আয়তনের ভূমি লিজ দেয় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন। ‘লিগালাইজিং ইলিগ্যাল’ শিরোনামে মোস্তফা ইউসুফের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনটি ডেইলি স্টারে প্রকাশিত হওয়ার পর এ ব্যাপারে হাইকোর্ট রিট পিটিশন দায়ের করেন পরিবেশ সংগঠন ‘বেলা’র প্রধান নির্বাহী রিজওয়ানা হাসান।

রিটের প্রেক্ষিতে গত ২ জানুয়ারি হাইকোর্ট ওই লিজ বাতিল করে দেশের সমস্ত জেলা প্রশাসককে কোনো বনভূমি লিজ না দেওয়ার নির্দেশ দেন। একই সাথে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনকে তলব করেন হাইকোর্টে।

প্রসঙ্গত, কৃতী সাংবাদিক মোস্তফা ইউসুফ লন্ডনভিত্তিক ফাইন্যান্স আনকাভার্ডের শর্ট ফেলোশিপ পেয়ে “ইলিসিট ফাইনেন্সিং ও ডিজিটাল সিকিউরিটির উপর সম্প্রতি লন্ডনে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন ।

একুশে/এটি