শনিবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২০, ১২ মাঘ ১৪২৬

সেই নূরে বাংলার ‍মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, জানুয়ারি ১৪, ২০২০, ৮:১১ অপরাহ্ণ

চন্দনাইশ (চট্টগ্রাম) : ইসলামী বক্তা মাহবুবুল হক আল কাদেরী ওরফে নূরে বাংলার মুক্তির দাবিতে চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চন্দনাইশের রৌশনহাট এলাকায় এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

চন্দনাইশ জাহাঁগিরিয়া শাহসুফি মমতাজিয়া দরবার শরীফের উদ্যোগে ও দাওয়াতে সুফি বাংলাদেশ’র ব্যবস্থাপনায় উক্ত মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

আহলে সুন্নত ওয়াল জামাত বাংলাদেশ’র স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা সচিব শাহজাদা মাওলানা মতি মিয়া মনসুরের পরিচালনায় এতে উপস্থিত ছিলেন আহলে সুন্নত ওয়াল জামাত বাংলাদেশ’র চন্দনাইশ উপজেলার সভাপতি শাহজাদা খাজা মোহাম্মদ মোবারক আলী, শাহজাদা মাওলানা মুহাম্মদ মনজুর আলী, শাহজাদা মাওলানা মোহাম্মদ মহিব্বুল্লাহ হাশেমী, মাওলানা মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম, মুফতী মাওলানা মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন মমতাজী, মাওলানা মোহাম্মদ ইদ্রিস কাদেরী, মাওলানা অলি আহমদ, মো. হাবিবুর রহমান, মাওলানা মো. রেজাউল করিম, মাওলানা মোহাম্মদ আবদুল মন্নান, মাওলানা আহমদ হোনাইন, মাস্টার মোহাম্মদ রায়হান উদ্দিন, মাস্টার মো. মফিজুর রহমান, মো. শাহাব উদ্দিন, মাস্টার রতন, মাস্টার রঞ্জন বড়ুয়া, মো. মিজবাহ, মো. রিদুয়ান প্রমূখ।

মানববন্ধনে বক্তারা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার ইসলামী ফ্রন্ট সাতকানিয়া উপজেলার সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মাহবুবুল হক ওরফে নূরে বাংলাকে অবিলম্বে মুক্তি ও তার বিরুদ্ধে করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

উল্লেখ্য, সাতকানিয়া উপজেলার খাগরিয়া ইউনিয়নের একটি মাহফিলে হেফাজতে ইসলামের আমির শাহ আহমদ শফী ও ইসলামী বক্তা মাওলানা মিজানুর রহমান আজহারীসহ বেশ কয়েকজন আলেমকে নিয়ে কটূক্তি করার অভিযোগ উঠে নূরে বাংলার বিরুদ্ধে। এ নিয়ে সাতকানিয়া থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ’র সাতকানিয়া উপজেলার আমির মাওলানা আব্দুল মোবিন।

এই মামলায় গত ৭ জানুয়ারি রাত ১০ টার দিকে সাতকানিয়া উপজেলার মৌলভীর দোকান এলাকা থেকে নূরে বাংলাকে গ্রেপ্তার করে সাতকানিয়া থানা পুলিশ। উক্ত মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গত ১২ জানুয়ারি নূরে বাংলাকে দুইদিনের রিমান্ডে নেয়ার আদেশ দেয় আদালত।

একুশে/এআর/এএ