শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০, ২৬ আষাঢ় ১৪২৭

রাষ্ট্রপতি পদক পেলেন আনসারের আলোচিত কর্মকর্তা আউয়াল

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২০, ১১:৫৫ অপরাহ্ণ

নোয়াখালী : রাষ্ট্রপতি গ্রাম প্রতিরক্ষা দল (সেবা) পুরস্কার পেয়েছেন বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষাবাহিনীর পরিচালক মোহাম্মদ আবদুল আউয়াল (বাবু)।

বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি একাডেমি, সফিপুরে বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি’র ৪০ তম জাতীয় সমাবেশে তার হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মোহাম্মদ আবদুল আউয়াল (বাবু) নোয়াখালী জেলার চাটখিল উপজেলার কৃতি সন্তান মরহুম মাহবুবুর রহমান ও ফখরুন্নেসার সন্তান। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের ২৫তম ব্যাচের ছাত্র। ১৮তম বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে বাংলাদেশ আনসার বাহিনীর একজন ক্যাডার হিসেবে যোগদানের পর তিনি বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন।

রাঙামাটি জেলায় দায়িত্ব পালনকালে ২০১৭ সালে রাঙামাটিতে ভূমি ধসে নিহত ও আহত পাহাড়ি-বাঙালিদের উদ্ধারে ব্যাপক ভূমিকা রেখেছিলেন। তাঁর নির্দেশনায় ভূমিধসের ধ্বংসস্তুপ থেকে মধ্যরাতেই মাটি থেকে ৬ জনের লাশ বের করে আনা হয়। দুর্ঘটনা-পরবর্তী বাস্তুহারাদের জন্য সেনিটেশন, বিশুদ্ধ খাবার, পানিসহ তাৎক্ষণিক শুকনো খাবারের ব্যবস্থা করেন। ভূমিধসের সময় তড়িৎ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তিনি সর্বমহলে প্রশংসিত হন।

অপারেশন উত্তরণের আওতায় রাঙামাটি রিজিয়ন এলাকায় সেনাবাহিনী ও বিজিবির সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সেই জেলাকে নিরাপদ রাখতে গুরুত্ব সহকারে দায়িত্ব পালন করে আবদুল আউয়াল। তিনি আনসার ও ভিডিপি রাঙামাটি জেলা কার্যালয়ের সৌন্দর্যবর্ধনে ভূমিকা রাখেন। জেলা কার্যালয়টি রাস্তার পাশে হওয়ায় দুর্ঘটনা হতে সাধারণ পথচারী ও অফিস স্টাফদের নিরাপত্তার স্বার্থে দুর্ঘটনাপ্রবণ এলাকাটিতে আলাদা লেন চালু করেন। জেলা কার্যালয়ে অসংখ্য সিঁড়ি ও পর্যাপ্ত পানি সংযোগের ব্যবস্থা করে দেন ওইসময়। একই সাথে রাঙামাটি জেলা ও দুটি আনসার ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক হিসেবে (১৪ আনসার ব্যাটালিয়ন ও ১৬ আনসার ব্যাটালিয়ন) দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

হিল আনসারদের আবাসনের ব্যবস্থা গ্রহণে রয়েছে তার উল্লেখযোগ্য অবদান। সম্প্রতি ১৬ আনসার ব্যাটালিয়ন, জোরারগঞ্জ, মিরসরাই, চট্টগ্রামে যোগদানের পর নানাবিধ ফুল ও ফলের বাগান তৈরি করে ব্যাটালিয়নের সৌন্দর্য্যবর্ধন ও সৈনিকদের মনোবল বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেন তিনি। ব্যাটালিয়ন আনসারদের কল্যাণে বরাবরই তিনি নিবেদিতপ্রাণ কর্মকর্তা।

একুশে/এএ/এটি