বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল ২০২০, ২৬ চৈত্র ১৪২৬

সোলাইমানিকে হত্যার ব্যাখ্যায় হোয়াইট হাউজ ও ট্রাম্পের স্ববিরোধিতা

প্রকাশিতঃ শনিবার, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২০, ৯:৪৫ পূর্বাহ্ণ


পার্সটুডে: ইরানের কুদস ফোর্সের সাবেক কমান্ডার লেঃ জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার কারণ সম্পর্কে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বক্তব্যের সঙ্গে হোয়াইট হাউজের বক্তব্যের সুস্পষ্ট পার্থক্য রয়েছে বলে জানিয়েছেন একজন প্রভাবশালী কংগ্রেসম্যান।

মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটির চেয়ারমান এলিয়ট এঙ্গেল (Eliot Engel) বলেছেন, হোয়াইট হাউজ সম্প্রতি জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যার ব্যাখ্যা সম্পর্কিত একটি প্রতিবেদন কংগ্রেসের কাছে জমা দিয়েছে। তিনি বলেন, একটি সম্ভাব্য হুমকি মোকাবিলা করার উদ্দেশ্যে জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়েছে বলে ট্রাম্প যে দাবি করেছিলেন তার সঙ্গে হোয়াইট হাউজের প্রতিবেদনের সুস্পষ্ট পার্থক্য রয়েছে।

গত ৩ জানুয়ারি জেনারেল সোলাইমানির শাহাদাতের পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প দাবি করেছিলেন, ইরাকের রাজধানী বাগদাদের কয়েকটি বিদেশি দূতাবাসে সম্ভাব্য হামলা প্রতিহত করার লক্ষ্যে ইরানের এই প্রভাবশালী জেনারেলকে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু হোয়াইট হাউজের প্রতিবেদনে এমন কোনো কথা নেই বলে এলিয়ট এঙ্গেল জানান।

গত ৩ জানুয়ারি শুক্রবার ভোররাতে ইরাকের রাজধানী বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে জেনারেল সোলাইমানিকে বহনকারী গাড়ির ওপর ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে মার্কিন সন্ত্রাসী সেনারা। হামলায় ইরাকের জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী হাশদ আশ-শাবির উপ প্রধান আবু মাহদি আল-মুহান্দিসসহ দুই দেশের আরো ৮ কমান্ডার শহীদ হন।

মার্কিন সেনারা এমন সময় জেনারেল সোলাইমানির উপর ওই হামলা চালায় যখন তিনি ইরাকের প্রধানমন্ত্রী আদেল আব্দুল মাহদির রাষ্ট্রীয় আমন্ত্রণে বাগদাদ সফরে গিয়েছিলেন।