বুধবার, ১ এপ্রিল ২০২০, ১৮ চৈত্র ১৪২৬

কর্মীদের ‘আবেগ’ এড়ানোর জন্য নীরবে চট্টগ্রাম ফিরলেন নাছির

প্রকাশিতঃ সোমবার, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০, ৬:৫২ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলের মনোনয়ন-বঞ্চিত বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন সোমবার সকালের ট্রেনে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম ফেরার কথা ছিল। গতকাল (রোববার) থেকে খবরটি ছড়িয়ে পড়লে দলীয় নেতাকর্মী, সমর্থক, শুভানুধ্যায়ীরা দুপুরে চট্টগ্রাম রেল স্টেশনে জড়ো হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

এজন্য তারা দলে দলে রেল স্টেশনে যাওয়ার প্রস্তুতিও নিয়েছেন। বিষয়টি বুঝতে পেরে মেয়র নাছির যাত্রাপথ পরিবর্তন করে অনেকটা নীরবে চট্টগ্রাম ফিরেন।

সোমবার (১৭ ফেব্রয়ারি) নভো এয়ারের দুইটার বিলম্বিত ফ্লাইটে চড়ে বিকেলে ৪টায় চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে অবতরণের পর সোজা নগরের আন্দরকিল্লার বাড়িতে মায়ের কাছে চলে যান নাছির। মার দোয়া নিয়ে মিনিট দশেক পর চলে যান সিটি করপোরেশন কার্যালয়ে।

এর আগে মেয়রের চট্টগ্রাম ফেরা নিয়ে রোববার বিকেলে তাঁর শুভানুধ্যায়ী, সহকর্মীদের কাছে গণমাধ্যকর্মীরা জানতে চাইলে ট্রেনযোগে সোমবার দুপুরে মেয়র নাছির চট্টগ্রাম ফিরবেন বলে জানানো হয়। সেখানে কর্মী-সমর্থকদের উপস্থিতিতে কী পরিস্থিতি হতে পারে এবং মনোনয়ন-বঞ্চিত হওয়ার পর মেয়র নাছিরের আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া কী হবে তা কভার করতে চট্টগ্রামের গণমাধ্যমকর্মীদেরও প্রস্তুতি ছিল।

কিন্তু রোববার রাতে মেয়র আ জ ম নাছিরের অনুসারী জামালখান ওয়ার্ড কমিশনার শৈবাল দাশ সুমন একুশে পত্রিকাকে ফোন করে জানান, নির্ধারিত শিডিউলে চট্টগ্রাম ফিরছেন না মেয়র। কখন ফিরছেন তা পরে জানানো হবে বলে জানান তিনি।

এ অবস্থায় সোমবার সন্ধ্যায় খবর হয় যে, মেয়র কাউকে না জানিয়ে চট্টগ্রাম চলে এসেছেন। এখন অফিস করছেন। এরপর মেয়র নাছিরকে ফোন করে জানতে চাওয়া হয় নীরবে ফিরলেন কেন?

জবাবে মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন একুশে পত্রিকাকে বলেন, কর্মী-সমর্থক ও সাধারণ মানুষের ‘আবেগ’ এড়ানোর জন্যেই মূলত নীরবে আসা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনা যাকে ভালো ও যোগ্য মনে করেছেন তাকেই মনোনয়ন দিয়েছেন। নেত্রীর সিদ্ধান্তই আমার কাছে শিরোধার্য।

কিন্তু আমার কিছু শুভানুধ্যায়ীর এ নিয়ে মন খারাপ। আমাকে ফোন করে অনেকেই আবেগ প্রকাশ করেছেন, কেউ কেউ কেঁদেছেনও। ট্রেনযোগে ফেরার খবর শুনে এরমধ্যে রেলস্টেশনে তারা জড়ো হওয়ার সিদ্ধান্তও নিয়েছিলেন। বিষয়টি জানতে পারে আমি নীরবেই চলে এসেছি। আমি চাইনি এ নিয়ে আর কোনো আবেগ প্রদর্শন হোক, রেল স্টেশনে জনসমাগমের ফলে মানুষের মাঝে ভোগান্তি তৈরি হোক।-বলেন মেয়র নাছির।

প্রসঙ্গত, মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ ও জমাদানের জন্য ১১ থেকে ১৩ ফেব্রয়ারি ঢাকায় অবস্থান করে ১৪ ফেব্রুয়ারি সকালে চট্টগ্রাম ফিরে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে অধ্যয়নরত একমাত্র কন্যাকে দেখতে যান মেয়র। সেখান থেকে ফিরে পরদিন (১৫ ফেব্রুয়ারি) তিনি পুনরায় ঢাকা যান। সেদিন রাতে মনোনয়ন বোর্ডের সভাশেষে গণভবনে মেয়র প্রার্থী হিসেবে নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক এম রেজাউল করিম চৌধুরীর নাম ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছিরসহ মোট ১৯ জন মেয়র পদে মনোনয়ন চেয়েছিলেন।

একুশে/এসআর/এটি