বুধবার, ১ এপ্রিল ২০২০, ১৮ চৈত্র ১৪২৬

মুজিববর্ষে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে রাবি শিক্ষকের গান

প্রকাশিতঃ সোমবার, মার্চ ১৬, ২০২০, ১১:০৩ অপরাহ্ণ

রাবি প্রতিনিধি : মুজিববর্ষ ও জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) নির্মিত হয়েছে একটি গান। বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সুখরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র-শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের (টিএসসিসি) প্রযোজনায় বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে আবেগঘন এই গানটি এরই মধ্যে প্রসংশা কুড়িয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারে।

গানটির সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা জানান, টিএসসিসি’র প্রযোজনায় ‘শতবর্ষেও তুমি চির মহান, চির অম্লান’ শিরোনামের এই গানটির অডিও ও ভিডিও নির্মাণ করা হয় টিএসসিসি পরিচালক অধ্যাপক ড. হাসিবুল আলম প্রধানের উদ্যোগে।

ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে আয়োজিত বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে প্রশাসনের অনুষ্ঠানে প্রথম গানটির অডিও প্রকাশ ও পরিবেশন করা হয়। ৭ মিনিট ১৪ সেকেন্ডের ২৭ লাইনের এই গানটি মূলত টিএসসিসি পরিচালক অধ্যাপক ড. হাসিবুল আলম প্রধানের লেখা একটি কবিতা।

টিএসসিসি কর্তৃপক্ষ জানায়, গানটিতে সুর দিয়েছেন উপ-পরিচালক সৌমিত্র ব্যানার্জি ও সঙ্গীয়তায়োজনে চপল খান। কণ্ঠ দিয়েছেন অধ্যাপক হাসিবুল আলম প্রধান, কণ্ঠশিল্পী আলমগীর পারভেজ, সৌমিত্র ব্যানার্জী, সংগীত বিভাগের শিক্ষক সোনিয়া শারমিন খান, পারমিতা হকসহ ১৭ জন কণ্ঠশিল্পী। গানটির জন্য ভিডিওচিত্র নির্মাণ করেছেন চলচ্চিত্রকার ও টিএসসিসি উপ-পরিচালক আহসান কবীর লিটন।

গানটি সম্পর্কে এর রচয়িতা ড. হাসিবুল আলম প্রধান বলেন, এদেশের জন্মসংগ্রামের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর নাড়ির সম্পর্ক। দীর্ঘদিনের স্বপ্ন ছিল তাঁকে শ্রদ্ধা জানিয়ে একটি গান তৈরি করব। আমার সেই স্বপ্ন সফল হয়েছে। গানটিতে বঙ্গবন্ধুর মহান নেতৃত্ব, ত্যাগ, বাংলায় তাঁর গৌরবোজ্জ্বল অস্তিত্ব প্রভৃতি বিষয় ফুটে উঠেছে। আমরা চাই মুজিববর্ষে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এই গান জাতীয়ভাবে প্রচার করা হোক যেন দেশের মানুষের মধ্যে বঙ্গবন্ধুর প্রতি প্রেমকে আরো উদ্বুদ্ধ করে এই গান।

তিনি জানান, গানটি ১৭ মার্চ মুজিব বর্ষের প্রথম দিন থেকে বিভিন্ন টেলিভিশন ও বেতার চ্যানেলে প্রচারিত হবে। পরবর্তীতে তা ইউটিউবে সবার জন্য উন্মুক্ত করা হবে।

প্রসঙ্গত, অধ্যাপক ড. হাসিবুল আলম প্রধান বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষকতা ও মৌলিক গবেষণার পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও সমসাময়িক বিষয় নিয়ে লেখালেখি করেন। বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় তার ৫০টির বেশি কলাম ছাপা হয়েছে। ‘বঙ্গবন্ধু মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ’ নামের বহুল আলোচিত বইটির লেখক তিনি। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে পঞ্চগড় জেলার এই গর্বিত সন্তান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেন।