শুক্রবার, ৩ এপ্রিল ২০২০, ২০ চৈত্র ১৪২৬

কাপ্তাইয়ে জোড়া খুনের ঘটনায় দুইজনের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, মার্চ ২৪, ২০২০, ৭:৪১ অপরাহ্ণ

কাপ্তাই প্রতিনিধি : কাপ্তাইয়ের রাইখালী ইউনিয়নের গবাছড়া এলাকায় গত বছরের মা-মেয়েকে ব্রাশফায়ারে হত্যার ঘটনায় দুই আসামি রাঙ্গামাটি আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছেন। সোমবার তারা আদালতে এ জবানবন্দি দেন।

এর  আগে গত শনিবার (২১ মার্চ) মুল আসামি মেহলা মারমা ওরফে সানি মারমাকে (৩৪) খাগড়াছড়ি জেলার লক্ষিছড়ি এলাকা থেকে গ্রেফতার করে চন্দ্রঘোনা থানা পুলিশ। তার স্বীকারোক্তি মতে, রাঙ্গুনিয়া থেকে গ্রেফতার করা হয় অপর আসামি মো. রবিউল আলম ওরফে বাবলুকে (২২)। 

জানা যায়, গত বছরে ১ জুলাই দিবাগত রাতে রাইখালী গবাছড়া এলাকায় শসস্ত্র সন্ত্রাসীরা সাইখই মারমা (৬০) ও তার মেয়ে সাংনু মারমাকে (২৯) ব্রাশফায়ারে হত্যা করে।

দীর্ঘ একবছরেরও বেশি সময় পর গত শনিবার (২১ মার্চ) খাগড়াছড়ির লক্ষিছড়া এলাকা হতে জোড়া খুনের মূল ঘাতক রাইখালীর নোয়াপাড়া তিনছড়ি এলাকার মৃত ক্যাজহলা মারমা ওরফে পুতুল মারমা পুত্র মেহলা মারমা ওরফে সানি মারমাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।  

পরে তার স্বীকারোক্তি ও তথ্য মতে, হত্যা মামলার অপর আসামি রবিউল আলম বাবলুকে (২২) রাঙ্গুনিয়া থেকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পদুয়া ইউনিয়নের ছিফছড়ি পাড়ার পশ্চিম কুরশিয়ার মোঃ ইব্রাহিমের ছেলে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চন্দ্রঘোনা থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ শফিউল আজম, এসআই মিশন বিশ্বাস, এসআই মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, এএসআই কাউছার হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স সহকারে তাদের গ্রেফতার-অভিযানে অংশ নেন। আসামীদ্বয় সোমবার (২২ মার্চ) রাঙ্গামাটির বিজ্ঞ আদালতের ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছে বলে জানিয়েছেন চন্দ্রঘোনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আশ্রাফ উদ্দিন।