পটিয়ায় দূরত্ব বজায় রাখতে গোল বৃত্ত এঁকে দিচ্ছে প্রশাসন


পটিয়া (চট্টগ্রাম) : করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে দূরত্ব বজায় রাখতে পটিয়া সদরের প্রত্যেকটি দোকানের সামনে লাল রঙের গোল বৃত্ত এঁকে দিচ্ছে প্রশাসন। এর ফলে প্রতি ৩ ফুট দূরত্বে অবস্থান করতে বাধ্য হবেন মানুষজন।

বৃহস্পতিবার পটিয়া শহরের নিত্যপণ্য ও ওষুধের দোকানগুলোর সামনে তিন ফুট দূরত্ব বজায় রাখতে ব্যতিক্রমী এক উদ্যোগ নিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফারহানা জাহান উপমা।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে এ বিষয়ে মানুষকে সচেতন করতে একাধিক টিমের মাধ্যমে মাইকিং করার পাশাপাশি তিন ফুট দূরত্ব বজায় রাখতে দোকানের সামনে বৃত্ত এঁকে দিচ্ছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, পটিয়া সদরের উপজেলা পরিষদ চত্বর, পোস্ট অফিস এলাকা, বাস ষ্টেশন এলাকা, বৈলতলীর রোড়, শহীদ ছবুর রোড় এলাকায় বিভিন্ন সড়কে তিন ফুট অন্তর-অন্তর লাল রং দিয়ে বৃত্ত এঁকে দেওয়া হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা জাহান উপমা সেনা সদস্য, পুলিশ, আনসার ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়ে নিত্যপণ্য ও ওষুধের দোকানের সামনে মাইকিং কার্যক্রম পরিচালনা করছেন।

এ বিষয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা জাহান উপমা বলেন, সেনা সদস্য, পুলিশ, আনাসারসহ সম্মিলিত ফোর্স নিয়ে তিনি সকাল থেকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় দোকান-পাট বন্ধ ও জনসমাগম বিচ্ছিন্ন করা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে কাজ করেছেন। পাশাপাশি শহরের ওষুধ, নিত্যপণ্যের দোকানে ব্যক্তিগত দূরত্ব বজায় রাখতে রং দিয়ে ৩ ফিট দূরত্বের চিহ্ন এঁকে দিচ্ছেন।

তিনি বলেন, পটিয়ায় শুরু থেকেই সম্মিলিতভাবে করোনা প্রতিরোধে নানা ইতিবাচক কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়, যা ধারাবাহিকভাবে চলমান রয়েছে। এ কারণে পটিয়া সদরে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে অনেকটা ভালো অবস্থায় রয়েছে।