বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

প্রাইভেট ক্লিনিক চিকিৎসকদের সুরক্ষা উপকরণ নিশ্চিতে হাইকোর্টের নির্দেশ

প্রকাশিতঃ সোমবার, মে ১৮, ২০২০, ৫:৪৯ অপরাহ্ণ


ঢাকা : করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে উপদেষ্টা কমিটির নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ ও সুপারিশ সম্পর্কে এক সপ্তাহের মধ্যে একটি প্রতিবেদন দাখিলে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে দায়িত্বরত ডাক্তার, নার্স ও অন্যদের চিকিৎসার জন্য প্রযোজনীয় পিপিই, গ্লভস, সার্জিক্যাল মাস্ক, অন্য স্বাস্থ্য সুরক্ষার উপকরণের ব্যবস্থা নিশ্চিত করতেও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
জনস্বার্থে আনা এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে আজ বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের ভার্চ্যুয়াল কোর্ট এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে সব রোগীর স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার নির্দেশনা চেয়ে জনস্বার্থে মানবাধিকার ও পরিবেশবাদী সংগঠন হিউম্যান রাইটস ফর পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি)পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী একলাছ উদ্দিন ভূইয়া ও সরোয়ার আহাদ চৌধুরী এ রিট পিটিশন দায়ের করেন।

আইনজীবী মনজিল মোরশেদ জানান, এ রিট মামলায় হাইকোর্ট দু’টি নির্দেশনা দিয়েছেন এবং শুনানির জন্য রেগুলার বেঞ্চে (ছুটি শেষে নিয়মিত আদালত) পাঠিয়েছেন।

তিনি বলেন , চিকিৎসার অভাবে মানুষের মৃত্যু মৌলিক অধিকারের লংঘন এবং বর্তমান পরিস্থিতিতে সাধারণ জ্বর, সর্দি, গলাব্যথা বা অন্য যে কোনো রোগের চিকিৎসা নিতে গেলে করোনার ভয়ে বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকের ডাক্তারদের চিকিৎসায় অনিহা দেখা যাচ্ছে। রোগীর চিকিৎসা যেমন গুরুত্বপূর্ণ তেমনি ডাক্তার ও নার্সদের নিরাপত্তাও গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু প্রাথমিকভাবে করোনা রোগী বাছাই করতে না পারলে সমস্যার সমাধান হবে না।এরকম মহামারি প্রতিরোধে সংসদে আইন পাস করে উপদেষ্টা কমিটিকে ক্ষমতা দেয়া হয়েছে। কিন্তু সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ) আইন-২০১৮ এর ৬ ধারা অনুসারে উপদেষ্টা কমিটি যথাযথ দায়িত্ব পালন করেছে কিনা তা নিশ্চিত হতে একটি প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশনা প্রার্থনা করেছি।

শুনানি শেষে আদালত বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে দায়িত্বরত ডাক্তার, নার্স ও অন্যদের চিকিৎসার জন্য প্রযোজনীয় পিপিই, গ্লভস, সার্জিক্যাল মাস্ক, অন্য স্বাস্থ্য সুরক্ষার আইটেমের ব্যবস্থা নিশ্চিত করার জন্য বিবাদিদের (রেসপনডেন্ট) নির্দেশনা দিয়েছেন। এছাড়াও এক সপ্তাহের মধ্যে মহামারি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে উপদেষ্টা কমিটির নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ ও সুপারিশ সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন আদালতে দাখিলের জন্যও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।