শুক্রবার, ৩ জুলাই ২০২০, ১৯ আষাঢ় ১৪২৭

নিজের সুরক্ষা নিজেকেই নিশ্চিত করতে হবে : মেয়র নাছির

প্রকাশিতঃ শনিবার, মে ৩০, ২০২০, ১০:২৮ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম : করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে নিজের সুরক্ষা নিজেকেই নিশ্চিত করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রাম সিটির মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

স্বাস্থ্যবিধি ও সতর্কতা মেনে চলার জন্য নগরবাসীর প্রতি অনুরোধ জানিয়ে শনিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ কথা বলেন।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে চলমান সাধারণ ছুটি শেষে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামীকাল রোববার থেকে খুলছে সরকারি-বেসরকারি সব অফিস। একই সঙ্গে সীমিত পরিসরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে লঞ্চ ও ট্রেন বা গণপরিবহনও চালু হচ্ছে।

এ পরিস্থিতিতে বিবৃতিতে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, জীবন ও জীবিকার সমন্বয় ঘটানোর লক্ষ্যে জনস্বার্থে সরকার ৩১ মে হতে সাধারণ ছুটি প্রত্যাহার করে নিয়েছে। ফলে নগরবাসী স্বাভাবিকভাবে বিভিন্ন প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হবেন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন সহ বিভিন্ন অফিস আদালত, হাট-বাজার, শপিংমল খোলা থাকবে। সেক্ষেত্রে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ার ঝুঁকি সৃষ্টি হতে পারে। তাই প্রিয় নগরবাসীকে নিম্নলিখিত সতর্কতা মেনে চলার জন্য সনির্বন্ধ অনুরোধ করা যাচ্ছে।

তিনি বলেন, বিনা প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হবেন না। প্রয়োজনে যখনই বের হবেন সাবান দিয়ে কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড ভালো করে হাত ধুয়ে মানসম্মত মাস্ক পরে বের হবেন এবং কাজ শেষে দ্রুত বাসায় ফিরে যাবেন। বাসায় ফিরে পরিধেয় কাপড় কমপক্ষে আধাঘন্টা সাবান পানি বা ডিটারজেন্টে ডুবিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলতে হবে।

মেয়র বলেন, গণ-পরিবহন, হাট-বাজার কিংবা শপিং মলে যাতায়াতের ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব অবশ্যই মানতে হবে এবং হাত দিয়ে কোন কিছু স্পর্শ করার প্রয়োজন হলে স্যানিটাইজার দিয়ে হাত দূষণমুক্ত করে নিতে হবে।

মেয়র বলেন, গণ পরিবহণ, অফিস-আদালত, শপিংমল ও হাট বাজার ব্যবস্থাপনার সাথে নিযুক্ত ব্যক্তিবর্গকে সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি শতভাগ অনুসরণ করে প্রতিষ্ঠান বা পরিবহন পরিচালনা করার জন্য অনুরোধ করছি।

মেয়র বিবৃতিতে উল্লখ করেন, উপরোক্ত নির্দেশনা-সতর্কতাসমূহ মেনে কার্যক্রম পরিচালনা করা হলে করোনা সংক্রমণ অনেকাংশেই নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে। অন্যথায় প্রত্যেকই ঝুঁকির মুখে নিপতিত হওয়ার আশংকা রয়েছে। তাই নিজের নিজের সুরক্ষা নিজেকেই নিশ্চিত করতে হবে। সকলের সহযোগিতায় এই মহামারীর বিরুদ্ধে চলমান যুদ্ধে জয়ী হওয়া সম্ভব বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।