বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই ২০২০, ১৮ আষাঢ় ১৪২৭

১৫ জুন পর্যন্ত আদালতে ভার্চুয়াল শুনানি

প্রকাশিতঃ রবিবার, মে ৩১, ২০২০, ১২:০১ পূর্বাহ্ণ


ঢাকা : দেশব্যাপী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ও শারীরিক উপস্থিতি ছাড়া তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে ৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগ ও নিম্ন আদালতে বিচারিক কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের সঙ্গে সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ বিচারপতিদের আলোচনার পর শনিবার (৩০ মে) এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে, গত ১০ মে প্রধান বিচারপতির দেওয়া বিশেষ প্রাক্টিস নির্দেশনার ধারাবাহিকতা ফের নির্দেশনা আকারে জারি করার কথা জানোনো হয়। আদালতের তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার অধ্যাদেশ, ২০২০ এর ৫ ধারার ক্ষমতাবলে এবং মহামারি কোভিড-১৯ মোকাবিলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও শারীরিক উপস্থিতি ছাড়াই বিচার কার্যক্রম পরিচালনার করতে এই নির্দেশ দেওয়া হয়।

এতে বলা হয়, অধস্তন দেওয়ানি ও ফৌজদারি আদালত এবং ট্রাইব্যুনালসমূহে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে অতি জরুরি বিষয়সমূহ আদালত কর্তৃক তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার অধ্যাদেশ, ২০২০ এবং সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনা অনুসরণ করে শুনানি এবং প্রয়োজনীয় আদেশ দেবেন।

ঝুঁকিপূর্ণ ব্যক্তি, অসুস্থ, কর্মচারী এবং সন্তান সম্ভাব্য নারীরা কর্মস্থলে উপস্থিত হওয়া থেকে বিরত থাকবেন।

এর আগে, বিকালে আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগেও ভার্চুয়াল কোর্টে শুনানি হবে বলে জানানো হয়।

মহামারি করোনার কারনে গত ২৬ মার্চ থেকেই বন্ধ রয়েছে দেশের সব আদালত। তবে গত ১১ মে থেকে দেশব্যাপি চালু হয় ভার্চুয়াল কোর্ট। এরপর থেকে জামিনসহ জরুরি মামলাসমূহ ভার্চুয়াল কোর্টেই নিষ্পত্তি হয়ে আসছে। সরকারি ছুটির সাথে সাথে গত ২৬ মার্চ থেকে সব আদালতে ছুটি ঘোষণা করা হয়। এরপর কয়েক দফা বাড়িয়ে তা ৩০ মে পর্যন্ত তা বাড়ানো হয়।