শনিবার, ৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭

হোম কোয়ারেন্টিনে ওসি মহসীন

প্রকাশিতঃ রবিবার, মে ৩১, ২০২০, ৭:৩৪ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশে (সিএমপি) জনবান্ধব কর্মকর্তা হিসেবে পরিচিতি পাওয়া কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীনের গাড়ি চালকের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

শনিবার (৩০ মে) রাতে এ তথ্য জানার পর থেকে হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন ওসি মোহাম্মদ মহসীন। চারদিন পর তিনি করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দেবেন। ফলাফল না আসা পর্যন্ত বাসায় থেকে কোতোয়ালী থানার যাবতীয় কার্যক্রম পরিচালনা করবেন ওসি মহসীন।

এসব বিষয় নিশ্চিত করে কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন একুশে পত্রিকাকে বলেন, সে (চালক) তো আমার পাশাপাশি থাকতো। এক গাড়িতে চলাফেরা করেছি। আর থানায় ও বাইরে দিন-রাত কাজকর্ম করেছি। এখন পজিটিভ ধরে নিয়ে ট্রিটমেন্ট শুরু করেছি— বাদ বাকি আল্লাহ ভরসা।

এখন পর্যন্ত কোতোয়ালী থানা পুলিশের মোট ৮ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে একজন উপ-পরিদর্শক ও একজন সহকারী উপ-পরিদর্শক ও ৬ জন কনস্টেবল রয়েছেন। আক্রান্তদের সংস্পর্শে যাওয়া পুলিশ সদস্যদের করোনা পরীক্ষার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর অংশ হিসেবে ওসির চালকেরও নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছিল।

প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ পুলিশ উইমেন অ্যাওয়ার্ড কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন পুলিশ ও জনগণের মধ্যে দূরত্ব কমিয়ে আনার ক্ষেত্রে কার্যকর ভূমিকা রেখে আসছেন। পুলিশের ‘হ্যালো ওসি’ কার্যক্রম প্রথম শুরু করেছিলেন তিনি। পরে এ ধারণাটি সিএমপির অন্য থানাসহ সারাদেশে ছড়িয়ে পড়ে। খুচরা মাদক বিক্রেতা, অপরাধীদের আলোর পথে নিয়ে যেতে অগ্রণী ভূমিকা রেখে প্রশংসা কুড়িয়েছেন মহসীন।

করোনা সংক্রমণ ছড়ানো ঠেকাতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা, শ্রমজীবী মানুষকে সহায়তা করা, সুরক্ষাসামগ্রী বিতরণ করা, চিকিৎসা না পেয়ে থানায় হাজির হওয়া মানুষের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা, ঘরে থাকা মানুষের কাছে চাহিদা অনুযায়ী পণ্য পৌঁছে দেওয়া, কোয়ারেন্টিন থেকে পালিয়ে যাওয়া ব্যক্তিকে খুঁজে বের করা, লকডাউন এলাকায় মানুষের যাতায়াত নিয়ন্ত্রণ করা— সব কাজেই তৎপর ছিলেন ওসি মহসীন।

সম্প্রতি করোনা রোগীদের চিকিৎসায় প্লাজমা ব্যাংক চালুর জন্য এগিয়ে এসেছেন মোহাম্মদ মহসীন। ফেসবুকে নিজের পেজ ও ব্যক্তিগত আইডির মাধ্যমে প্লাজমা ও রক্ত সংগ্রহে ভূমিকা রাখছেন তিনি।