শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০, ২৬ আষাঢ় ১৪২৭

প্রতিবাদীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধের ঘোষণা ট্রাম্পের

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, জুন ২, ২০২০, ৮:১৮ অপরাহ্ণ


ওয়াশিংটন : মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের বড় শহর মিনিয়াপলিসে পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েড নৃশংসভাবে নিহত হওয়ায় যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে।

গত কয়েকদিন ধরে একটানা প্রতিবাদ বিক্ষোভ চলতে থাকায় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প শক্ত হাতে বিক্ষোভ দমনের নির্দেশ দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ২৫ মে একজন শ্বেতাঙ্গ পুলিশ ফ্লয়েডের গলায় পা দিয়ে শ্বাসরুদ্ধ করে তাকে হত্যা করলে গণ-বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ ছড়িয়ে পড়ে।

বিক্ষোভকারীদের ভয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দু’দিন ধরে ভূগর্ভস্থ বাঙ্কারে লুকিয়ে থাকার পর গতকাল (সোমবার) অঙ্গরাজ্যগুলোতে যথেষ্ট সংখ্যক সেনা মোতায়েন করতে জাতীয় গার্ড বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন।

ট্রাম্প হুমকি দিয়ে বলেছেন, কোনো অঙ্গরাজ্যের গভর্নর যদি এই নির্দেশ পালন না করেন তাহলে সেখানে খুব দ্রুত সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন করব। তিনি আরও বলেন, সাম্প্রতিক বিক্ষোভগুলোতে যেসব সহিংসতা হয়েছে সেসব শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ ছিল না বরং সেসব ছিল ঘরোয়া সন্ত্রাস।

ট্রাম্প প্রতিবাদীদের সন্ত্রাসী হিসেবে অভিহিত করে তাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার অঙ্গীকার করেছেন। এরিমধ্যে ট্রাম্প রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসির দিকে ভারী অস্ত্রে সজ্জিত কয়েক হাজার সেনা পাঠিয়েছেন। সেখানে জনগণের চলাফেরার ওপর সীমাবদ্ধতা আরোপ কঠোরভাবে কার্যকর করা হবে বলেও তিনি জানান।

উল্লেখ্য ওয়াশিংটন, নিউ ইয়র্ক, পোর্টল্যান্ড, ও লস অ্যাঞ্জেলসসহ বিভিন্ন শহরে প্রতিবাদীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। বিক্ষোভ থামাতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নানা অঙ্গরাজ্যের ২৫টি শহরে কারফিউ দেয়া হয়েছে। আটক হয়েছে দেড় হাজার বিক্ষোভকারী। বিক্ষোভকারী ও এমনকি সাংবাদিকদের ওপরও পুলিশ গুলি চালিয়েছে।