১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৩ ফাল্গুন ১৪২৫, শুক্রবার

হাসপাতাল থেকে আসামির পালায়ন, দুই পুলিশ বরখাস্ত

KSRM Advertisement
প্রকাশিতঃ শুক্রবার, এপ্রিল ৬, ২০১৮, ৭:৫৬ অপরাহ্ণ

বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলা হাসপাতাল থেকে পুলিশ পাহারায় চিকিৎসাধীন এক আসামি পালিয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার রাতে মাদক মামলার এজাহারভুক্ত আসামি তন্ময় মন্ডল (২০) কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যান।

পুলিশ পাহারায় আসামি পালানোর ঘটনায় দায়িত্ব পালনে অবহেলার অভিযোগে দুই পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

এরা হলেন- চিতলমারী থানার কনস্টেবল আব্দুর রউফ ও শওকত আলী। শুক্রবার তাদের বাগেরহাট জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

পালিয়ে যাওয়া আসামি তন্ময় মন্ডল চিতলমারী উপজেলার সদর ইউনিয়নের খড়মখালী গ্রামের প্রয়াত বলরাম মন্ডলের ছেলে। পালিয়ে যাওয়া ওই আসামিকে ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অনুকুল চন্দ্র সরকার বলেন, গত ২ এপ্রিল রাতে চিতলমারী উপজেলার খাসেরহাট এলাকায় পুলিশ অভিযানে যায়। পুলিশের ধাওয়ায় তন্ময় রাস্তার ওপর পড়ে কোমরে ও পায়ে আঘাত পায়। পরে তার দেহ তল্লাশি করে ১০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও ৫০ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার বরে পুলিশ।

তিনি আরও জানান, মাদক উদ্ধারের ঘটনায় উপ-পরিদর্শক (এসআই) মারফত আলী বাদী হয়ে চিতলমারী থানায় তন্ময়ের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা করেন। সেখান থেকে তন্ময়কে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য পুলিশ পাহারায় চিতলমারী উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তন্ময় টয়লেট যাওয়ার কথা বললে পুলিশ তার হাতকড়া খুলে দেয়। এ সময় সে বিছানা থেকে নেমেই পাহারায় থাকা পুলিশ সদস্য শওকত আলী ও আব্দুর রউফকে ধাক্কা দিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায়। তার বিরুদ্ধে চিতলমারী থানায় মাদক ছাড়াও তিনটি চুরির মামলা রয়েছে।

বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় জানান, দায়িত্ব পালনে অবহেলার অভিযোগে চিতলমারী থানার কনস্টেবল আব্দুর রউফ ও শওকত আলীকে সাময়িক বরখাস্ত করে শুক্রবার বাগেরহাট পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। পালিয়ে যাওয়া আসামি তন্ময় মন্ডলকে গ্রেফতারে পুলিশের একাধিক দল অভিযান চালাচ্ছে।