২৩ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬, সোমবার

কে গুম আর খুন হবে তা প্রধানমন্ত্রীই জানেন : এরশাদ

প্রকাশিতঃ শনিবার, এপ্রিল ৭, ২০১৮, ৬:৫১ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে কখন কে গুম হবে আর কে খুন হবে তা আল্লাহ ছাড়া কেউ না জানলেও এ দেশে প্রধানমন্ত্রী একজনই তা জানেন বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ।

শনিবার (৭ মার্চ) বিকেলে চট্টগ্রামের লালদীঘি ময়দানে সম্মিলিত জাতীয় জোট আয়োজিত মহা সমাবেশে প্রধান অথিতির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

সরকারের শরীক দলের শীর্ষ নেতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সরকারের সমালোচনা করে আরো বলেন, ‘উন্নয়নের মহাসড়ক এখন দুর্নীতির মহাসড়কে পরিণত হয়েছে। উন্নয়নের মহাসড়কে খাল-বিল কেন? এই মহাসড়কে আমরা হাবুডুবু খাচ্ছি। ঢাকা রংপুর যেতে ১৫ ঘন্টা লাগে।’

বাংলাদেশের মত ব্যাংক ডাকাতি আর কোথাও হয় নাই জানিয়ে তিনি বলেন, ‘কিছুদিন আগে বলা হতো ব্যাংকের টাকা নেওয়ার কেউ নেই। এখন বলা হচ্ছে ব্যাংকে টাকা নেই। কোথায় গেল এই টাকা ? কৃষককে ব্যাংকের টাকা দিতে না পারলে জেলে যেতে হয়, এদের যেতে হয় না কেন? প্যারাডাইস পেপারস এ যাদের নাম আসে। এদের তো বিচার হয়না। কৃষকের বিচার হয়।’

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে এরশাদ বলেন, ‘উনি কথা দিয়েছিলেন ১০ টাকায় চাল খাওয়াবেন, এখন চালের কেজি ৭০ টাকা। একজন রিকশাওয়ালার তিন থেকে চারজন সন্তান। তারা ৭০ টাকা কেজিতে কিবাবে ভাত খাবে? ঘরে ঘরে চাকরি দেওযার কথা বলেছিলেন, কিন্তু এখন দেশে ৪ কোটি ৮২ লক্ষ বেকার। ওরা এখন দেশের বোঝা, পরিবারের বোঝা, সমাজের বোঝা। কিন্তু উনারা ভালো আছেন। মানুষ কেমন আছেন, তাদের তা জানার সময় নেই।’

`কারা ব্যাংক চুরি করলো তাদের নাম জানতে পারলাম না। নিশ্চয় আপনপার জড়িত আছেন। তাই কিছু বলেন না। আপনারা জানেনন তারা কে। কিন্তু নাম প্রকাশ করেন না।’- বলেন সাবেক এ রাষ্ট্রপতি।

বর্তমান সরকারকে স্বৈরাচার দাবি করে এরশাদ আরো বলেন, ‘এখন সরকার চালায় কে? শুধু একজন । আমার সাথে বসতে লজ্জা পান। স্বৈরাচার বলেন। এখন আন্তর্জাতিক সংস্থা বাংলাদেশকে স্বৈরাচার রাষ্ট্র বলে। এখনকার সরকার স্বৈরাচার। দুর্নীতিতে কারা পাঁচবার চ্যাম্পিয়ন হইছে। এই দুই সরকার।’

সম্মিলিত জাতীয় জোটের শীর্ষনেতা ও ইসলামী ফ্রন্টের চেয়ারম্যান আল্লামা এম এ মান্নানের সভাপতিত্বে সমাবেশে জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, ‘দেশের মানুষ পরির্তন চায়। ২৮ বছর ধরে দেশে হত্যা, খুন বেড়ে চলেছে। দেশে চলছে লুঠপাট। আজকের মহাসমাবেশের জনস্রোত প্রমাণ করে দেশের মানুষ সাবেক সফল রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে ক্ষমতায় চান। আগামী নির্বাচনে লাঙ্গল-মোমবাতি মার্কায় জোটবদ্ধ হয়েছে। আমাদের ক্ষমতায় আসতে হবে। দেশে শান্তি ফিরিয়ে আনতে হবে।’

সমাবেশে জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, বন ও পরিবেশ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, ইসলামী ফ্রন্টের মহাসচিব এম এ মতিন, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক সিটি মেয়র মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী, মহানগর জাতীয় পার্টির আহবায়ক সোলেমান আলম শেঠ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

একুশে/এএ