১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৪ ফাল্গুন ১৪২৫, শনিবার

কোটা পদ্ধতিই বাতিল : সংসদে প্রধানমন্ত্রী

KSRM Advertisement
প্রকাশিতঃ বুধবার, এপ্রিল ১১, ২০১৮, ৫:৫৪ অপরাহ্ণ

একুশে ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতিই বাতিল। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বুধবার বিকেল ৫টায় অধিবেশন শুরু হয়। কোটাসংস্কার নিয়ে প্রশ্নোত্তর পর্বে সংসদ সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানকের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘কোটা থাকলেই আন্দোলন হবে, আজ এরা-কাল আরেকজন আসবে। এর থেকে আমি মনে করি কোটা পদ্ধতিই বাতিল করাটাই ভালো হবে।’ এসময় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও প্রতিবন্ধীদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা রেখে সরকারি চাকুরিতে কোটা না রাখার কথা জানান তিনি। বলেন, নারীসহ তরুণ শিক্ষার্থী এবং জেলা পর্যায়েও শিক্ষার্থীরা যেহেতু কোটা চায় না তাই কোটা পদ্ধতি রাখার দরকার নেই। সেই সঙ্গে,আন্দোলনকারীদের শ্রেণিকক্ষে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

বুধবার জাতীয় সংসদের প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারীত প্রশ্নত্তোর পর্বে ঢাকা ১৩ আসনের সাংসদ জাহাঙ্গীর কবির নানক কোটা বিরোধী আন্দোলনের প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘লেখাপড়া বন্ধ করে রাস্তায় বসে থাকা। পড়ার টেবিল বাদ দিয়ে তারা রাস্তায় নেমে আসলো। ডিজিটাল বাংলাদেশ আমরা করেছিলাম। ফেসবুক-টুইটার ব্যবহার আমরাই শিখিয়েছিলাম। আর আমাদের বিপক্ষেই এখন এগুলোর অপব্যাবহার করা হচ্ছে।

‘আমরাও আন্দোলন করেছি। কিন্তু এমন তো আমরা কখনও দেখিনি! একজন উস্কানি দিলো-একজন আন্দোলনকারী মারা গেছে। আর সবাই রাস্তায় নেমে এলো। রাত একটার সময় পর্যন্ত, গেটের তালা ভেঙে মেয়েরা বেরিয়ে এসেছে। এমনটা কখনও দেখা যায়নি। যদি তাদের কিছু হতো, এর জবাব কে দিতো।’

এসময় তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসভবনে হামলার সঙ্গে যারা জাড়িতদের খুঁজে বের করে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে বলেও জানান।

একুশে ডেস্ক/এএ