২৩ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬, সোমবার

বিদ্যুৎ সুইচ নিজ হাতে বন্ধ করি, এতে সম্মান যায় না: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ১২, ২০১৮, ৪:২৩ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিদ্যুৎ ব্যবহারে সচেতনতা ও দায়িত্বশীলতার তাগিদ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন,‘আমি যখন ঘর থেকে বের হই কিংবা বাথরুম থেকে বের হই তখন নিজের হাতে সুইচ বন্ধ করি। এতে আমার সম্মান যায় না। নিজের কাজ নিজে করার মধ্যে সম্মানহানির কিছু নাই। আপনারা যখন ঘর থেকে বের হবেন তখন সুইচটি বন্ধ করে যান।’

বৃহস্পতিবার দুপুরে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ১৫টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি আরো বলেন, ‘আপনার টেলিভিশন চালান, কম্পিউটার চালান এখানে যে লাল আলো জ্বলে থাকে তাতেও বিদ্যুৎ খরচ হয়। মোবাইল-ল্যাপটপ চার্জ শেষে অনেক সময় চার্জার রেখে দেন সেখানেও বিদ্যুৎ খরচ হয়। আপনারা যদি সুইচ বন্ধ করে রাখেন তাতে বিদ্যুৎ সাশ্রয় হবে। এতে আপনাদেরই উপকার হবে, দেখবেন মাস শেষে বিদ্যুৎ বিল কম আসছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এক ওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে যে খরচ হয় আমরা কিন্তু আপনাদের কাছ থেকে সেই দাম নিই না। বিদ্যুৎখাতে আমরা ভতুর্কি দিই। খরচের চেয়ে অনেক কম দামে আপনারা বিদ্যৎ পান। বিদ্যুৎ আমাদের মূল্যবান ও গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ তাই উচিৎ হবে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সচেতন ও মিতব্যয়ী হওয়া।’

শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘সরকারি মাল দরিয়া মে ঢাল এই মনোভাব রাখলে হবে না। স্কুল কলেজে, অফিস-আদালতে ফ্যান চলে। আপনারা যখনই বাইরে যাবেন নিজ হাতে সুইচটি বন্ধ করে দিন। স্কুলগুলোয় অকারণে ফ্যান যাতে না চলে সেটা খেয়াল রাখতে হবে। ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যেও এই অভ্যাসটা গড়ে তুলতে হবে। কোনোভাবেই বিদ্যুতের অপচয় যেন না হয় খেয়াল রাখতে হবে।’

অনুষ্ঠানে স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু, বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত স্থায়ী কমিটির সভাপতি তাজুল ইসলামসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

একুশে/এএ