২২ মার্চ ২০১৯, ৮ চৈত্র ১৪২৫, শুক্রবার

সোহেল রানা-কাণ্ডের পর বদলে গেছে কারাগার, কমেছে ৩৪ নিত্যপণ্যের দাম!

KSRM Advertisement
প্রকাশিতঃ সোমবার, অক্টোবর ২৯, ২০১৮, ৯:০০ অপরাহ্ণ

শরীফুল রুকন : এক কেজি কাঁচা সবজি চট্টগ্রাম কারাগারে বিক্রি হতো ১৮০ টাকায়; তবে জেলার সোহেল রানা-কাণ্ডের পর সবজি বিক্রি হচ্ছে এখন ৫০ টাকায়। শুধু সবজি নয়; গত ২৮ অক্টোবর থেকে ৩৪টি নিত্যপণ্যের দাম কমে গেছে কারাগারে।

গত শুক্রবার ভৈরব স্টেশনে পুলিশের তল্লাশিতে ৪৪ লাখ ৪৩ হাজার টাকা, ১ কোটি ৩০ লাখ টাকার ব্যাংক চেক, আড়াই কোটি টাকার এফডিআর, পাঁচটি চেক বই এবং ১২ বোতল ফেনসিডিলসহ ধরা পড়েন চটটগ্রাম কারাগারের জেলার সোহেল রানা বিশ্বাস। এতে কারাগারের লাগামহীন দুর্নীতির চিত্র আরো একবার সামনে আসে।

চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের ভেতর বন্দিদের জন্য রয়েছে ক্যান্টিন। ৬ মাস পরপর নিলামে তোলা হয় এ ক্যান্টিন। এটি প্রতি ৬ মাসের জন্য ৪০-৪৫ লাখ টাকায় নিলামে বিক্রি হয়। তবে খাতা-কলমে তা দেখানো হয় না। এই টাকা তোলার জন্য সেখানে খাবারসহ সবকিছুর দাম রাখা হয় বাজার দরের চেয়ে তিন থেকে চারগুণ বেশি।

বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে সংবাদ প্রকাশ হলে অবস্থার পরিবর্তন হয়নি। কয়েকগুণ বেশি দাম দিয়েই বন্দিদের কিনতে হচ্ছিল পণ্য। তবে জেলার সোহেল রানা কাণ্ডের পর মুহূর্তেই বদলে যায় ক্যান্টিনের পণ্যের দাম। গত ২৮ অক্টোবর থেকে পণ্যের নতুন দাম নির্ধারণ করে দেয় কর্তৃপক্ষ।

আগে কারাগারের ক্যান্টিনে চিনি বিক্রি হতো কেজিপ্রতি ১৪০ টাকায়; এখন বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকায়। রুই মাছ বিক্রি হতো কেজিপ্রতি ৬০০ টাকায়; আর এখন এই মাছের দাম মাত্র ২০০ টাকা। টমেটোর কেজি আগে ছিল ২৪০ টাকা, এখন ১২০ টাকা। এক কেজি আলুর দাম ছিল ১২০ টাকা; এখন মাত্র ৩০ টাকা।

সাধারণ চা-পাতা আগে কারাগারে বিক্রি হতো কেজিপ্রতি ৬০০ টাকা; বর্তমানে চা পাতা ২২০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। টি-ব্যাগ চা-পাতা এক বক্স আগে ১৮০ টাকা থাকলেও এখন মাত্র ৯০ টাকা। ১০০ গ্রাম কাঁচামরিচ আগে বিক্রি হয়েছিল ৩০ টাকায়; এখন বিক্রি হচ্ছে মাত্র ৮ টাকায়। একটি কলার দাম ছিল আগে ২০ টাকা, এখন ১০ টাকা।

এক ডজন কমলার দাম আগে ৬০০ টাকা নেয়া হতো; এখন এই ফলের দাম মাত্র ২০০ টাকা। এক কেজি লইট্টা মাছ এখন ২০০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে কারাগারে; আগে এই মাছের দাম রাখা হতো ৪০০ টাকা।

গরুর মাংস আগে ছিল ৯০০ টাকা; এখন ৬০০ টাকা। সয়াবিন তেল আগে লিটার প্রতি ১৫০ টাকা ছিল; এখন ১০০ টাকায় মিলছে। ১৮০ টাকায় আগে এক কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হতো কারাগারে; এখন বিক্রি হচ্ছে মাত্র ৩৫ টাকায়।

আগে বেনসন প্রতি প্যাকেট ছিল ২৮০ টাকা; এখন ২৩০ টাকা। গোল্ডলিপ ছিল ২২০ টাকা; এখন ১৬০ টাকা। ডার্বি সিগারেট ছিল প্রতি প্যাকেট ১৩০ টাকা; এখন ৮০ টাকা। শেখ সিগারেট এখন প্রতি প্যাকেট বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায়, আগে বিক্রি হতো ১৩০ টাকায়।

পণ্যের দাম কমে যাওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার প্রশান্ত কুমার বণিক বলেন, গ্রেফতার হওয়া সোহেল রানা ক্যান্টিনের দায়িত্বে ছিলেন। তাকে এ ব্যাপারে সতর্ক করেছিলাম, স্বাভাবিক দামে পণ্য বিক্রির তাগিদ দিয়েছিলাম। কিন্তু সে শোনেনি। এখন পণ্যের দাম কমেছে।

চট্টগ্রাম কারাগারে বর্তমানে বড় ধরনের পরিবর্তন এসেছে বলে দাবি করেন সিনিয়র জেল সুপার; তিনি বলেন, ওয়ার্ডে গিয়ে বন্দিদের সঙ্গে আমরা কথা বলেছি, তারা এখন অনেক খুশি। কারও কোনো অভিযোগ নেই। অনিয়ম দূর হয়েছে।

একুশে/এসআর/এটি