২৬ মার্চ ২০১৯, ১২ চৈত্র ১৪২৫, মঙ্গলবার

চট্টগ্রামে যুবলীগকর্মীর আঙুল কেটে নিল দুর্বৃত্তরা

KSRM Advertisement
প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ১০, ২০১৯, ৬:০২ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম: আধিপত্য বিস্তার নিয়ে চট্টগ্রাম নগরীতে ক্ষমতাসীন দলের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত চারজন। এদের মধ্যে একজন বাম হাতের বুড়ো আঙুল হারাতে বসেছেন; আরেকজনের ডান হাত ও ডান পা ভেঙে গেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার দিবাগত রাতে ইপিজেড থানার নারিকেল তলা এলাকায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতা দেবাশীষ পাল দেবু এবং সাবেক কাউন্সিলর ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মো. আসলামের অনুসারীদের মধ্যে এই ঘটনা ঘটেছে।

দেবাশীষের অনুসারী চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক জাকের আহমেদ খোকন অভিযোগ করে বলেন, আসলামের উপস্থিতিতে সন্ত্রাসী হামলায় গুরুতর আহত হন যুবলীগ কর্মী লোকমান। তার বাম হাতের বুড়ো আঙুল বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। মাথা ও শরীরের অন্য জায়গায়ও আঘাত পান তিনি। তাকে প্রথমে চট্টগ্রাম মেডিকেলে ও পরে ম্যাক্স হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে তিন ঘন্টা অস্ত্রোপচারের পর চিকিৎসকেরা আঙুল জোড়া লাগবার সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, একই ঘটনায় যুবলীগ কর্মী সাইফুলের ডান হাত ও ডান পা ভেঙে গেছে। সে এখন চট্টগ্রাম মেডিকেলে ভর্তি আছে। এ ছাড়া আহত হওয়া ছাত্রলীগ নেতা ইয়াছিন ও ফয়সালসহ আরো কয়েকজন বিভিন্ন হাসপাতালে চিকি ৎসা নিচ্ছেন।

জাকের আহমেদ খোকনের অভিযোগ, সংঘর্ষের পর আসলামের অনুসারীরা নারিকেলতলা এলাকার কাজির গলি, হক সাহেব গলি এলাকায় দেবাশীষের অনুসারীদের বাড়ি-ঘরে হামলা চালায়, ভাঙচুর করে। এবং ব্যারিস্টার কলেজ ছাত্রলীগ সম্পাদক আমেরিকা প্রবাসী রায়হান মো. রানার বাসায় হামলা চালিয়ে নগদ সাড়ে ৩ লাখ টাকা, ১ হাজার ৮০০ আমেরিকান ডলার, ১০ ভরি সোনা, ল্যাপটপ ও মোবাইল লুট করে নিয়ে যায় তারা।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে আওয়ামী লীগ নেতা মো. আসলামকে মুঠোফোনে পাওয়া যায়নি।

ঘটনার বিষয়ে ইপিজেড থানার ওসি মো. নুরুল হুদা বলেন, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই পক্ষ ধারালো অস্ত্র নিয়ে সংঘাতে জড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। সংঘর্ষে কয়েকজন আহত হয়েছেন। তবে রাতে বাড়িঘরে কোন হামলা হয়নি। এই অভিযোগের সত্যতা পাইনি।