২৬ মার্চ ২০১৯, ১২ চৈত্র ১৪২৫, মঙ্গলবার

নিউজিল্যান্ড ছেড়েছে টাইগাররা

KSRM Advertisement
প্রকাশিতঃ শনিবার, মার্চ ১৬, ২০১৯, ১১:৩০ পূর্বাহ্ণ


ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার পর নিউজিল্যান্ডে শেষ টেস্ট সিরিজ বাতিল হওয়ার পর দেশে ফিরছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। বাংলাদেশ সময় শুক্রবার ভোররাত ৩টার পর ক্রিকেটাররা ক্রাইস্টচার্চ বিমানবন্দরে পৌঁছান। শনিবার ভোর ৫টায় সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনসে করে দেশের উদ্দেশে রওনা দেন বাংলাদেশ দলের ১৯ সদস্য।

এর আগে দেশে ফেরা নিয়ে দলের ম্যানেজার খালেদ মাসুদ সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘(স্থানীয় সময়) শনিবার দুপুর ১২টায় (বাংলাদেশ সময় ভোর ৫টা) আমরা রওনা দেব। আশা করি, ঢাকায় পৌঁছাব রাত ১০টা ৪০ মিনিটে।’ কোচিং স্টাফদের কেউ কেউ যে দলের সঙ্গে ফিরছেন না, সেটি অবশ্য ম্যানেজার আগেই বলেছেন। আমরা ১৯ জন ফিরব। কোচিং স্টাফের কেউ ওয়েস্ট ইন্ডিজ যাবে, কেউ হয়তো দক্ষিণ আফ্রিকায়। তারা দ্রুতই টিকিট পেয়ে যাবেন।’

জানা গেছে, কোচিং স্টাফসহ ১৯ জনের দল একসঙ্গে একই ফ্লাইটে দেশে ফিরছেন। তবে প্রধান কোচ স্টিভ রোডস, পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ ও ট্রেনার মারিও ভিল্লাভারায়েন ফিরে যাবেন নিজ নিজ দেশে।

১৫ ক্রিকেটার হলেন- মাহমুদউল্লাহ, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোস্তাফিজুর রহমান, লিটন দাস, তাইজুল ইসলাম, সাদমান ইসলাম, মুমিনুল হক, খালেদ আহমেদ, এবাদত হোসেন, মোহাম্মদ মিঠুন, নাঈম হাসান, আবু জায়েদ ও সৌম্য সরকার।

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে শুক্রবার জুমার নামাজের সময় ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার খবর আসার পর থেকেই উৎকণ্ঠায় ছিল গোটা বাংলাদেশ। কারণ এই শহরেই আজ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্ট খেলতে নামার কথা ছিল টাইগারদের।

টেস্টের ভেন্যু হ্যাগলি ওভালের পাশের যে মসজিদে জুমার নামাজ পড়তে যাচ্ছিলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা, সেখানেই প্রথম হামলার ঘটনা ঘটে। মসজিদে পৌঁছতে একটু দেরি হওয়ায় প্রাণে বেঁচে যান ক্রিকেটাররা। পরে সেখান থেকে স্টেডিয়াম হয়ে সবাই নিরাপদে হোটেলে ফিরে যান।

পরে বিসিবি জানায়, বাংলাদেশ দলের সব সদস্য নিরাপদে হোটেলে ফিরেছেন। খেলোয়াড় ও টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে যত দ্রুত সম্ভব তাদের দেশে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নেয় বোর্ড।

এদিকে কাল ঢাকায় বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান বলেন, ‘এখন থেকে বাংলাদেশ দল যে দেশ সফর করবে, তাদেরকে আগে আমাদের ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করতে বলা হবে। যারা নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দেবে শুধু তাদের দেশেই দল পাঠানো হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘নিউজিল্যান্ডে এখন খেলার পরিস্থিতি নেই। তাই শেষ টেস্ট ম্যাচ বাতিল করা হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে শুক্রবার জুমার নামাজের সময় বন্দুকধারীর হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৯ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৪৮ জন। নিহতদের মধ্যে তিন বাংলাদেশি রয়েছেন। এর মধ্যে ড. আব্দুস সামাদ নামে একজন অধ্যাপক রয়েছেন। হামলার শিকার ‘মসজিদে নুর’-এর মোয়াজ্জিন হিসেবেও দায়িত্ব পালন করতেন ড. সামাদ।