২৭ মার্চ ২০১৯, ১২ চৈত্র ১৪২৫, মঙ্গলবার

হামলাকারীর কাছে বৈধ অস্ত্র ছিল : নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

KSRM Advertisement
প্রকাশিতঃ শনিবার, মার্চ ১৬, ২০১৯, ১১:১৬ পূর্বাহ্ণ


নিউজিল্যান্ড: নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের আল নুর মসজিদে হামলাকারীর কাছে বৈধ অস্ত্র ছিল বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন। স্থানীয় সময় আজ শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা জানান, হামলাকারীর নাম ব্রেন্টন ট্যারেন্ট (২৮)। হামলাকারী অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক। তিনি দুবছর ধরে নিউজিল্যান্ডের ডানিডিনে বসবাস করছেন।

জাসিন্ডা আরও জানান, হামলাকারী বৈধ অস্ত্র বহন করছিলেন। এতে হামলায় ব্যবহৃত গুলি কিনতে তার সমস্যায় পড়তে হয়নি। এ ঘটনার পর নিউজিল্যান্ডের অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইনে ব্যাপক পরিবর্তন আনা হবে বলে জানান তিনি।

উপপ্রধানমন্ত্রী উইনস্টন পিটার্স বিরোধী দলের নেতা সাইমন ব্রিজেসসহ অন্যদের নিয়ে আজ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন নিউজিল্যান্ড প্রধানমন্ত্রী।

নিউজিল্যান্ডভিত্তিক সংবাদমাধ্যম হেরাল্ডে জানিয়েছে, হত্যার অভিযোগে অস্টেলিয়ার এই নাগরিককে আগামী ৫ এপ্রিল পর্যন্ত রিমান্ড দিয়েছেন ক্রাইস্টচার্চের জেলা আদালত। এর আগে আদালতে প্রবেশের সময় রীতিমতো মাথা উঁচু করে প্রবেশ করতে দেখা যায় ট্যারেন্টকে, যা আদালতে উপস্থিত সবাইকে হতবাক করে দিয়েছে।

এমনকি আদালতে তোলার সময় গণমাধ্যমের দিকে চেয়ে তাকে মুচকি হাসতে দেখা যায়। এ সময় তার মধ্যে বিন্দুমাত্র অনুতাপ দেখা যায়নি।

আদালতে উপস্থিত আল জাজিরার সাংবাদিক জানান, ট্যারেন্ট অনেকটা সময় অপলক দৃষ্টিতে চেয়ে থাকে গণমাধ্যম কর্মীদের দিকে। মাঝে মাঝে তাদের দিকে তীর্যক হাসি ছুঁড়ে দেয় সে।

তবে কয়েদীর পোশাকে, হতকড়া পরে খালি পায়ে আদালতে হাজির হওয়া ট্যারেন্ট কোনো কথা বলেনি। শুধু হাতের ইশারায় জানিয়েছেন, সব ঠিক আছে। এমন ইশারা শেতাঙ্গ উগ্রবাদীদের মধ্যে প্রচলিত একটি বিষয়।