২৩ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬, সোমবার

চট্টগ্রাম মেডিকেলের অনিয়ম নিয়ে সাংবাদিকদের কাছে ‘প্রতিবেদন’ চান নওফেল

প্রকাশিতঃ শনিবার, মার্চ ৩০, ২০১৯, ৭:১৪ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের চিকিৎসক-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে সেবাপ্রার্থীদের নানা অভিযোগ বিষয়ে সাংবাদিকদের কাছে ‘প্রতিবেদন’ চাইলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ও কোতোয়ালী আসনের সাংসদ ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

শনিবার দুপুরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিক্ষা ও চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি চমেক হাসপাতালের অনিয়ম রোধে সাংবাদিকদের সহযোগিতা চান।

এক প্রশ্নের জবাবে মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, কোনো নির্দেশনা আমি এখনই দিতে চাই না। আমি এখন বলে গেলে, কিছু সময়ের জন্য সব ঠিক হয়ে যাবে। কিন্তু আমি চাই দীর্ঘমেয়াদী সমাধান। তার জন্য গণমাধ্যমের সহযোগিতা চাই। গণমাধ্যম হচ্ছে জনগণের চোখ। আপনারা কোনো অসঙ্গতি দেখলে সেটা তুলে ধরবেন, কর্তৃপক্ষকে অবহিত করবেন। তাহলে তারা সেটা সমাধান করতে পারবে। এভাবে করে সমস্যার সমাধান হবে।

এখন পর্যন্ত গণমাধ্যম অত্যন্ত দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করছে জানিয়ে নওফেল বলেন, তারা কিন্তু বার বার অনেক ইস্যু সামনে নিয়ে আসেন। আমাদেরকে জানালে আমরা সেটার সমাধান করার চেষ্টা করি। কোনো কর্মচারী যদি মনে করেন তিনি সরকারি চাকরি করেন বলে দায়িত্ব অবহেলা করে পার পেয়ে যাবেন সেটা ভাবার কারণ নেই। কোনো সমস্যা থাকলে সমস্যাগুলো কী তা নির্ধারণ করে সমাধান করব।

তিনি বলেন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হচ্ছে স্বাস্থ্যসেবার জায়গা, চিকিৎসা শিক্ষার জায়গা। এখানে রাজনীতি করতে আসিনি আমি। আর কেউ যদি রাজনীতি করতে আসেন এটাকে ঘিরে, তবে সেটা হবে অসৎ উদ্দেশ্য। চট্টগ্রামবাসীর এই স্বাস্থ্যসেবার জায়গাটাকে যেন কেউ বাণিজ্যিক ও রাজনীতিকরণ না করে সেটা আমাদের মূল লক্ষ্য।

নওফেল বলেন, আমরা যারা রাজনীতি করি, আমাদের মূল উদ্দেশ্যে হলো জনসেবা। সেই মন মানসিকতা নিয়ে এখানে রাজনীতিটা প্রতিষ্ঠা করতে হবে। যাতে করে জনসেবার মানসিকতা নিয়ে এখানে যারা নেতৃত্ব স্থানীয় আছেন তারা যেন জনগণের সুবিধা নিশ্চিত করতে পারেন। কারণ আমরা জনগণের কাছে দায়বদ্ধ, জনগণের কাছে জবাবদিহি করতে হয়। আমরা নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, এমপি-মন্ত্রী, জনগণ অমাদের কাছে চাইবে কী সুবিধা দিতে পেরেছি তা। জনগণ সরকারকে রাজস্ব দিচ্ছে তারা যেন উন্নতভাবে ভালোভাবে সেবা পায়। জনগণের প্রত্যাশাটা অনেক বেশি, আমাদের সীমাবদ্ধতাকে মাথায় রেখে জনগণের সেই প্রত্যাশা পূরণ করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, আমার নির্বাচনী এলাকার এই বিশাল প্রতিষ্ঠানটিতে আমি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে জনপ্রতিনিধি হিসাবে আসতে পারিনি। এবার সুযোগ পেলাম আসার। এখানে স্বাস্থ্য-শিক্ষাসেবার উন্নয়নে যা যা করার তা করব। সংকট থাকার পরও যেভাবে চিকিৎসকসহ দায়িত্বপ্রাপ্তরা যে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন, তাতে করে তাদের সেবা দেওয়ার মানসিকতা আছে তা প্রমাণিত হচ্ছে।

এ সময় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক মোহসেন উদ্দীন আহমদ, অধ্যক্ষ ডা. সেলিম মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর, বিএমএ সাবেক সাধারণ সম্পাদক ডা. নাসির উদ্দিন মাহমুদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

একুশে/এসআর/এটি