রবিবার, ৫ জুলাই ২০২০, ২১ আষাঢ় ১৪২৭

চট্টগ্রামে ফার্মেসিতে নেই জ্বরের ওষুধ, হাসপাতাল দিচ্ছে না সেবা : সুজন

প্রকাশিতঃ বুধবার, জুন ৩, ২০২০, ৮:২৯ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম : চট্টগ্রামে অক্সিজেনসহ বিভিন্ন চিকিৎসা সরঞ্জামের অভাবে রোগীরা সঠিকভাবে চিকিৎসা সেবা নিতে পারছে না বলে অভিযোগ করেছেন জনদুর্ভোগ লাঘবে জনতার ঐক্য চাই শীর্ষক নাগরিক উদ্যোগের প্রধান উপদেষ্টা ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন।

বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সুজন বলেন, চট্টগ্রামে একদিকে বেসরকারি হাসপাতালগুলো রোগীদের পর্যাপ্ত চিকিৎসাসেবা দিচ্ছে না অন্যদিকে জীবন রক্ষাকারী অক্সিজেনসহ জ্বরের চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধপত্র পাওয়া যাচ্ছে না ওষুধের দোকানগুলোতে।

তিনি বলেন, সাধারণ জ্বরের জন্য ডাক্তারের পরামর্শকৃত সহজলভ্য ওষুধ যেমন- নাপা, নাপা এক্সটেন্ড, এইস এক্স আর, এইস পাওয়ার, ডকসিক্যাপ, জিম্যাক্স, জিথ্রক্সসহ হাই ফ্লো ন্যাজল ক্যানুলাও চাইলেই পাওয়া যাচ্ছে না। অথচ এসব ওষুধগুলো আগে নিকটস্থ ঔষধের দোকানে হাতের নাগালেই পাওয়া যেতো।

খোরশেদ আলম সুজন বলেন, বর্তমানে করোনাভাইরাস কেন্দ্রিক পরিস্থিতিতে রোগীরা অবর্ণনীয় দুঃখ কষ্ট ভোগ করছে। সাধারণ জ্বর কাঁশি উপসর্গের রোগীরাও সামান্য চিকিৎসা সেবা না পাওয়ার ফলে মৃত্যু মুখে পতিত হচ্ছে। আর এ ক্ষেত্রে রোগীর জন্য অত্যাবশ্যকীয় উপাদান হিসেবে দেখা দিয়েছে পর্যাপ্ত অক্সিজেন সরবরাহ। অথচ সেই কাংখিত অক্সিজেন পাওয়া যাচ্ছে না কোথাও। হাসপাতালগুলোতেও কেন্দ্রীয় অক্সিজেন ব্যবস্থা না থাকায় রোগীরা ভোগান্তিতে পড়েছে অনেকাংশে। এ অবস্থায় রোগীর জীবন বাঁচাতে পর্যাপ্ত অক্সিজেন সরবরাহের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন সুজন।

নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির দুষ্টু সিন্ডিকেট চক্রটি জনগণের স্বাস্থ্যসেবা সরঞ্জামাদির উপর ভর করেছে মন্তব্য করে সুজন বলেন, করোনা পরিস্থিতিকে পুঁজি করে জনগণকে অস্থির করে সরকারকে বেকায়দায় ফেলার জন্য এসব ওষুধের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করা হচ্ছে। এভাবে পরিকল্পিতভাবে চট্টগ্রামের মানুষকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, একদিকে হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা সেবা নেই। অন্যদিকে জনগন যদি বাড়ীতে বসেও প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সুবিধা না পায় তাহলে সেটা হবে অত্যন্ত বেদনাদায়ক।

এছাড়া যেসব ওষুধগুলো এখন জ্বর, সর্দি এবং কাঁশির জন্য অত্যধিক গুরুত্বপূর্ণ সেসব ওষুধগুলোও অধিক হারে উৎপাদনের মাধ্যমে জনগণের কাছে পৌঁছে দেওয়ার অনুরোধ জানান প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা খোরশেদ আলম সুজন।