শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৪ আশ্বিন ১৪২৭

হারিকেন ইসাইয়াসে যুক্তরাষ্ট্রে নিহত ৫, লাখ লাখ মানুষ বিদ্যুৎহীন

প্রকাশিতঃ বুধবার, আগস্ট ৫, ২০২০, ১:০৬ অপরাহ্ণ


আন্তর্জাতিক ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রে হারিকেন ইসাইয়াস ব্যাপক তান্ডব চালিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর ক্যারোলিনা থেকে নিউইয়র্ক পর্যন্ত বয়ে যাওয়া ঘূর্ণিঝড়ে এখন পর্যন্ত ৫ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। হারিকেনের কারণে লন্ডভন্ড রাজ্যগুলোতে প্রায় ৩৪ লাখ মানুখ বিদ্যুৎহীন অবস্থায় রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় সোমবার রাতে উত্তর ক্যারোলিনাতে ইসাইয়াস প্রথম আঘাত হানে।

বিবিসি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হারিকেন ইসাইয়াসে নর্থ ক্যারোলিনার একটি মোবাইল হোম পার্কে টর্নেডোর আঘাতে দুইজন এবং নিউ ইয়র্ক, ডেলাওয়্যার এবং মেরিল্যান্ডে আরও অন্তত তিনজন মারা গেছে। পূর্ব উপকূলীয় অঞ্চলের অন্তত আটটি অঙ্গরাজ্যের ৩৪ লাখ মানুষ বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন বাংলাদেশিরাও।

ইসাইয়াসের কারণে মঙ্গলবারজুড়ে ছিল তুমুল বৃষ্টিপাত, এ কারণে দেখা দিয়েছে বন্যা এবং কয়েক ডজন মানুষকে ঘরছাড়া হতে হয়েছে। নিউইয়র্কে ঘূর্ণিঝড় ইসাইয়াসের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৭০ থেকে ৮০ মাইল। এছাড়াও ঘূর্ণিঝড়ে নিউজার্সি ট্রানজিটসহ কিছু স্থানে রেলযোগাযোগও বন্ধ হয়ে পড়েছে।

ইতোমধ্যে ঝড়টি ঘণ্টায় ৬৫ মাইল বেগে মঙ্গলবার বিকালে নিউ ইয়র্কের ওপর দিয়ে বয়ে গেছে। যুক্তরাষ্ট্রে তান্ডব শেষে ঘূর্ণিঝড়টি কিছুটি দুর্বল হয়ে দক্ষিণ-পূর্ব কানাডার দিকে ধাবিত হয়েছে। কানাডিয়ান হারিকেন সেন্টার দক্ষিণ কুইবেকে ভারী বৃষ্টিপাতের সতর্কতা দিয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় ইসাইয়াস এর তাণ্ডবে ক্ষতি অল্পের উপর দিয়ে হলেও করোনা মহামারীর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য তা বাড়তি বিপর্যয় ডেকে এনেছে। বিবিসি জানায়, করোনা ভাইরাসের মধ্য এই হারিকেনের তান্ডব ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলগুলোতে প্রশাসনকে বেশ চ্যালেঞ্জে ফেলেছে। সামাজিক দূরত্বের নিয়মকানুন মেনে চলার বাধ্যবাধকতা থাকায় আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে লোকজনকে জায়গা দেয়া নিয়ে বেশ সমস্যায় পড়ছেন তারা। মার্কিন দুর্যোগ সংস্থাগুলোকে কোভিড-১৯ এর আলোকে নতুন করে আশ্রয়কেন্দ্রগুলোর ব্যবস্থা ও প্রস্তুতি নিতে হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে বছরের নবম এই ঝড়টি, যেটি ইসাইয়াস নামকরণ করা হয়েছে সেটি গত সপ্তাহে পুয়ের্টোরিকো, হাইতি এবং ডোমিনিকান প্রজাতন্ত্রে আঘাত হানে। সেখানে এর আঘাতে প্রচুর গাছ উপড়ে যায়, ফসল এবং ঘরবাড়ি ধ্বংস হয় এবং বন্যা এবং ভূমিধ্বসের সৃষ্টি করে বলে জানিয়েছে বিবিসি।