বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৮ আশ্বিন ১৪২৭

করোনার টিকা ছড়িয়ে দিতে ভারতীয় সংস্থার সাথে বিল গেটসের সংস্থার চুক্তি

প্রকাশিতঃ রবিবার, আগস্ট ৯, ২০২০, ১২:২৫ পূর্বাহ্ণ


আন্তর্জাতিক ডেস্ক : তিনদিনের মধ্যেই বাজারে আসছে রাশিয়ার করোনার ভ্যাকসিন। যদিও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এর কার্যক্ষমতা নিয়ে নিশ্চিত নয়। তাই এখনো অক্সফোর্ডের করোনা ভ্যাকসিনকেই নির্ভরযোগ্য হিসেবে ধরে নেয়া হচ্ছে। অক্সফোর্ডের করোনার এই ভ্যাকসিন ভারতে তৈরি ও বিপণনের দায়িত্ব নিয়েছে সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া। আর সংস্থাটির সাথে সম্প্রতি একটি চুক্তি করেছে বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন ও গাভি ভ্যাকসিন অ্যালায়েন্স।

কলকাতা টাইমস জানায়, ভ্যাকসিন ভারতের বাইরে বিভিন্ন দেশের সুষ্ঠুভাবে পৌঁছে দিতে সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ার সঙ্গে চুক্তি করেছে বিল গেটস ফাউন্ডেশন। এই চুক্তিতে গাভি ভ্যাকসিন অ্যালায়েন্সকে ১৫ কোটি মার্কিন ডলার দিয়েছে বিলের সংস্থা যা ভারতের টিকা প্রস্তুতকারী সংস্থা্টির কাছে তুলে দেয়া হবে। ‘গাভি’ হলো প্রাইভেট পাবলিক সংস্থা, যারা বিশ্বের দরিদ্র দেশগুলোতে টিকা সহজলভ্য করে তুলতে অর্থ ও অন্যান্য সাহায্য করে।

বিশ্বব্যাঙ্ক নির্ধারিত উন্নয়নকারী দেশগুলোতে মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব নিয়েছে সেরাম। এক্ষেত্রে অক্সফোর্ডের করোনা ভ্যাকসিনের দাম তিন ডলার হতে পারে বলে জানিয়েছে সিরামের কর্মকর্তারা। তারা জানায়, ভারত ছাড়াও বিশ্বের ৯২টি দেশে ভ্যাকসিন রপ্তানির দায়িত্ব নিয়েছে সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া। এছাড়াও ভারত বায়োটেক, জাইদ্যাস ক্যাডিলা, আইসিএমআর ভারতের যৌথ উদ্যোগে তৈরি ভ্যাকসিনগুলির বণ্টন নিয়ে কাজ করছে সংস্থাটি।

তবে ঠিক কবে এই টিকা চূড়ান্ত অনুমোদন পাবে, তার জন্য মুখিয়ে আছে বিশ্ব। এবার উৎপাদনের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ সাহায্য ও পরিকাঠামো প্রস্তুত হয়ে যাওয়ায় অন্যান্য দেশের মতো ভারতেও ১০ কোটি করোনার টিকার ডোজ তৈরির ক্ষেত্র প্রস্তুত হয়ে গেলো। ২০২১ সালের শেষ নাগাদ ভারত ও অন্যান্য উন্নয়নশীল দেশের জন্য এই ১০ কোটি টিকা তৈরি হয়ে যাবে বলে সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।