শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৪ আশ্বিন ১৪২৭

আবাহনী প্রতিষ্ঠা করে শেখ কামাল অমর হয়ে আছেন : আ জ ম নাছির

প্রকাশিতঃ শনিবার, আগস্ট ১৫, ২০২০, ৬:৫৪ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম : আবাহনী ক্রীড়া চক্র প্রতিষ্ঠা করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বড় ছেলে শেখ কামাল অমর হয়ে আছেন বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক সিটি মেয়র ও চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থার (সিজেকেএস) সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন।

শনিবার (১৫ আগস্ট) আবাহনীর প্রতিষ্ঠাতা শহীদ শেখ কামালের ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে আবাহনী সমর্থক গোষ্ঠী চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলার উদ্যোগে এম.এ আজিজ স্টেডিয়ামে তার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের করা হয়। পরে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় অংশ নিয়ে আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, আবাহনী প্রতিষ্ঠা করে শেখ কামাল অমর হয়ে আছেন, থাকবেন। বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনের প্রাণ পুরুষ হচ্ছেন মরহুম শেখ কামাল। রাষ্ট্রের প্রধান নির্বাহীর ছেলে হয়েও তিনি সবার মতো আনন্দ ফূর্তিতে গা ভাসিয়ে দেননি। স্বাধীনতা পরবর্তীতে দেশের ক্রীড়াঙ্গনের দৈন্যদশা দেখে তিনি দূরদর্শী সিদ্ধান্ত নিয়ে আবাহনী গঠন করে খেলাধুলাকে নতুন মাত্রায় জাগিয়ে তুলেছিলেন।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে চট্টগ্রাম আবাহনীর প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ও সিজেকেএস সহ-সভাপতি লায়ন দিদারুল আলম চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গন যতোদিন থাকবে ততোদিন শেখ কামাল মানুষের মনে চির জাগরুক থাকবেন। আবাহনী আজ দেশে বিদেশে সুনাম অর্জন করেছে। শহীদ শেখ কামালের স্বপ্ন ছিলো বাংলাদেশ একদিন খেলাধুলায় বিশ্ব দরবারে সম্মানজনক অবস্থানে যাবে। আজ ঠিক তাই হয়েছে। এটাই একজন নেতার দূরদর্শীতা।

চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আবাহনী সমর্থক গোষ্ঠীর সভাপতি সাহাব উদ্দীন হাসান বাবুর সভাপতিত্বে ও মহানগর সাধারণ সম্পাদক আশরাফ উদ্দিন চৌধুরী ইভানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সমর্থক গোষ্ঠীর সাবেক সভাপতি কামাল আহমেদ, সাবেক সভাপতি মোসলেহ উদ্দিন নোয়াব, মাঈনুদ্দিন হাসান বাহাদুর, গোলাম মোস্তফা আজাদ, মোসলেহ উদ্দিন মোসলেম, রাশেদ ইবনে ফরিদ চৌধুরী, ফুটবল কোচ আবুল কাশেম, আলী ওসমান রাজু, জাহাঙ্গীর হোসেন, মাহবুবুর রহমান, স্বপন মজুমদার, হারুন অর রশীদ, সোহেল আহমেদ, মো. আলমগীর, আবদুল হাই, আজাদ চৌধুরী, মোঃ ইসমাইল প্রমুখ।

পরে বঙ্গবন্ধু ও শহীদ শেখ কামালের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মুনাজাত করা হয় এবং বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসের কবল থেকে বাংলাদেশ ও বিশ্বের মানুষকে রক্ষা করার জন্য মহান আল্লাহর রহমত কামনায় দোয়া করা হয়।